Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ধর্মশালার আউটফিল্ড নিয়ে বিচলিত নয় বাংলাদেশ

ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার বলেছেন, ‘এটির (ধর্মশালা) আউটফিল্ড বেশ খারাপ এবং সেখানে ইনজুরির আশংকা আছে’

আপডেট : ০৯ অক্টোবর ২০২৩, ১০:৪৯ পিএম

ঝুঁকিপূর্ণ ও ইনজুরি হওয়ার চরম শঙ্কা থাকা সত্যেও ধর্মশালার আউটফিল্ড নিয়ে বিচলিত নয় বাংলাদেশ। বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ডিপ ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগ অঞ্চলে ডাইভের চেষ্টা করতে গিয়ে চোট পেতে হয়েছে আফগানিস্তানের মুজিব-উর-রহমানকে।

বাংলাদেশের স্পিন কোচ রঙ্গনা হেরাথ অবশ্য বলেছেন, ইংল্যান্ডের বিপক্ষের ম্যাচে দলের খেলোয়াড়দেরকে ডাইভ দিতে নিষেধ নেই। যেকোনো ধরনের বিধিনিষেধ খেলোয়াড়দের শতভাগ প্রচেষ্টাকে বাঁধাগ্রস্ত করতে পারে।

তিনি বলেন, “আমরা কোনো রকম বিধিনিষেধ দিতে চাই না। কারণ আপনি যদি কাউকে কোনো কিছুতে বারণ করেন, তাহলে তারা শতভাগ দিতে পারবে না। এমন একটি প্রেক্ষাপটে আমি নিশ্চিতভাবে বলতে পারি, আগের ম্যাচে তারা দারুণ করেছে। তাই আউটফিল্ডেও আমরা তাদের সেরাটা দিতে বলেছি।”

আউটফিল্ডের এই দশার কারণেই চলতি বছরের শুরুতে ভারতের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার তৃতীয় টেস্টটি স্বল্প সময়ের নোটিশে ধর্মশালা থেকে ইন্দোরে সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল। মাঠের এমন অবস্থার  জন্য অবশ্য ওই অঞ্চলের কঠোর শীতকালীন পরিস্থিতিকেই দায়ী করেছে ভারতীয় ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিসিসিআই।

বাংলাদেশের বিপক্ষে ধর্মশালার আউটফিল্ডে ডাইভ দিতে গিয়ে চোট পান আফগানিস্তানের মুজিব-উর-রহমান/সংগৃহীত

তবে হেরাথ মনে করেন ভেন্যুটি আন্তর্জাতিক মানের বলেই সেখানে বিশ্বকাপের ম্যাচ দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, “আমার মনে হয় বিষয়টি নিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) কঠোর পরিশ্রম করেছে। তাই আন্তর্জাতিক মান বজায় রেখেছে বলেই এক দিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচের জন্য তারা ভেন্যুটিকে মনোনীত করেছে। সুতরাং বিষয়টি নিয়ে আমি সন্তুষ্ট।”

তবে ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার বলেছেন, “এটির আউটফিল্ড বেশ খারাপ এবং সেখানে ইনজুরির আশংকা আছে।”

তবে সেটিকে অজুহাত হিসেবে দেখাতে রাজি নন তিনি। বাটলার বলেন, “আমার ব্যক্তিগত মতামত হচ্ছে এটি (আউটফিল্ড) দুর্বল। সতর্কতার সঙ্গে ডাইভিং বা ফিল্ডিংয়ে সতর্ক থাকার যেকোনো নির্দেশনা দল হিসেবে আপনি যা করতে চাইছেন তার বিপক্ষে যাবে। সুতরাং মাঠ বা আউটফিল্ড যেমনই হোক এটি কোনোভাবেই আদর্শ কথা নয়। এটিকে আমরা কোনো অজুহাত হিসেবে দেখাতে চাই না। বরং এর সঙ্গে ভালোভাবে মানিয়ে নিতে চাই।”

তিনি বলেন, “যেকোনো সময় ইনজুরি হতে পারে। যেকোনো জায়গায়, যেকোনো পরিস্থিতিতে এটা হতে পারে। এটা উপেক্ষা করা যাবে না। কিন্তু এটি এমন একটি বিষয় যেখানে সতর্ক থাকার কথা বললে দেশের হয়ে যেটি করতে চান তার বিপক্ষে যাবে। প্রতিদ্বন্দ্বী দুই দলকেই এমন সমস্যার মোকাবেলা করতে হবে। সুতরাং আমরা সেখানে গিয়ে ভালো খেলার জন্য উন্মুখ হয়ে আছি। আমরা এসব বিষয়কে কোনো অজুহাত হিসেবে দেখাতে চাই না। আমার মনে হয় আমাদের শুধু একটু স্মার্ট হতে হবে।”

About

Popular Links