Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ব্যাটিং ব্যর্থতায় টানা দ্বিতীয় হার অস্ট্রেলিয়ার

প্রোটিয়াদের বোলিংয়ে নাকাল হয়ে দুই অঙ্কের ঘরে যেতে ব্যর্থ হয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার পাঁচ ব্যাটার

আপডেট : ১২ অক্টোবর ২০২৩, ১০:২৬ পিএম

স্বাগতিক ভারতের কাছে ছয় উইকেটে হেরে ২০২৩ বিশ্বকাপটা বাজেভাবে শুরু করেছিল অস্ট্রেলিয়া। সেই ধাক্কা কাটিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে তারা ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছিল। কিন্তু ঘুরে দাঁড়ানো তো দূর, প্রোটিয়াদের কাছে ১৩৪ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে অস্ট্রেলিয়ানরা।

বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) লখনৌয়ে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩১১ রান সংগ্রহ করে দক্ষিণ আফ্রিকা। জবাবে প্রোটিয়াদের বোলিং তোপে ব্যাটিং ব্যর্থতার চূড়ান্ত প্রদর্শনী দেখিয়ে ৪০.৫ ওভারে ১৭৭ রানে অলআউট হয়েছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

৩১২ রানের জয়ের লক্ষ্যে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস উদ্বোধন করেন ডেভিড ওয়ার্নার ও মিচেল মার্শ। মার্শের (৭) বিদায়ে ২৭ রানে প্রথম উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। পরের ওভারেই সাজঘরে ফেরেন আরেক ওপেনার ওয়ার্নারও। ২৭ বলে দুই বাউন্ডারিতে তিনি ১৩ রান করেন।

অস্ট্রেলিয়া দ্রুত দুই উইকেট হারালে লাবুশানের সঙ্গে জুটি গড়েন স্টিভেন স্মিথ। কিন্তু স্মিথ ১৬ বলে ১৯ রানে আউট হলে এ জুটি বিপদ সামলাতে ব্যর্থ হয়। স্মিথের বিদায়ের পর জশ ইংলিশও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। মাত্র ৪ বল খেলে ৫ রান করেন তিনি। এরপর টানা দুই ওভারে তাদের দেখানো পথে প্যাভিলিয়নে ফেরেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (৩) আর মার্ক স্টয়নিসও (৫)।

দলীয় ৭০ রানে ৬ উইকেট হারানোর পর অস্ট্রেলিয়ার জয়ের আশা সেখানেই শেষ হয়ে গেছিল। এরপর সপ্তম উইকেটে মার্নাস লাবুশান আর মিচেল স্টার্ক মিলে ৬৯ রানের জুটি গড়লেও সেটি শুধু স্কোরবোর্ডকে ভদ্রস্থ একটি চেহারা দিয়েছে। ৩৪তম ওভারে স্টার্ক ফিরলে এ জুটি ভাঙে। ৫১ বলে তিনটি চারে ২৭ রান করেন এ পেসার।

পরের ওভারে ফিরে যান লাবুশানও। ৭৬ বলে তিনটি বাউন্ডারিতে ৪৬ রান করেন। এরপর অধিনায়ক প্যাট কামিন্স চারটি বাউন্ডারিতে ২১ বলে ২২ রান করলেও সেটি শুধু প্রোটিয়াদের জয়টা বিলম্বিতই করেছে। শেষ পর্যন্ত ১৭৭ রানে গুটিয়ে গিয়ে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ইতিহাসে রানের হিসাবে নিজেদের সবচেয়ে বড় ব্যবধানের পরাজয় বরণ করে অস্ট্রেলিয়া। দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে পেসার কাগিসো রাবাদা সর্বোচ্চ তিন উইকেট নেন। এছাড়া দুটি করে উইকেট শিকার করেন মার্কো জ্যানসেন, কেশাব মহারাজ ও তাবরেজ শামসি।

About

Popular Links