Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বার্সার হারের রাতে ম্যান সিটির জয়, নকআউটে পিএসজি

  • এন্টওয়ার্পের কাছে ৩-২ গোলে হেরেছে বার্সেলোনা
  • ড্র করেও নকআউট পর্বে পিএসজি
  • টানা ছয় ম্যাচে জয় ম্যানচেস্টার সিটির
আপডেট : ১৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৪:০৪ পিএম

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে রেড স্টার বেলগ্রেডকে ৩-২ গোলে হারিয়ে টানা ছয় ম্যাচে জয়ের দেখা পেল ম্যানচেস্টার সিটি। তবে বেলজিয়ান ক্লাব এন্টওয়ার্পের কাছে ৩-২ গোলে হেরে অঘটনের শিকার হয়েছে বার্সেলোনা। অন্যদিকে, বিদায়ের শঙ্কা ও নানা সমীকরণকে উড়িয়ে দিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বের টিকিট পেয়েছে ফরাসি ক্লাব পিএসজি।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে খেলা আগেই নিশ্চিত করেছিল বার্সেলোনা ও ম্যানচেস্টার সিটি। এন্টওয়ার্পের মাঠে বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) রাতে ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে বার্সেলোনা। ডান পায়ের শটে বল জালে জড়ান আর্থার ভার্মেরেন। ৩৫ মিনিটে লামিন ইয়ামালের বাড়ানো বল পেয়ে বার্সেলোনাকে সমতায় ফেরান ফেররান তরেস।

বিরতির পর ৫৬ মিনিটে এন্টওয়ার্পকে লিড এনে দেন ভিনসেন্ট জানসেন। শেষের দিকে ইলকায় গুনদোয়ানের ফ্রি কিকে হেড দিয়ে বল জালে জড়িয়ে বার্সাকে স্বস্তি দিয়েছিলেন মার্ক গুইউ। যদিও সেটি মিনিট খানেকের বেশি স্থায়ী হয়নি। জেলে বাতাইলের অ্যাসিস্টে বল নিয়ে বাঁ-পায়ের শটে এন্টওয়ার্পের হয়ে জয়সূচক গোলটি করেন জর্জ ইলেনিখেনা।

পরাজয়ের পরও বার্সেলোনা ৬ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে “এইচ” গ্রুপের টেবিলের শীর্ষে থেকে গ্রুপ পর্ব শেষ করেছে।

বেলগ্রেডের মাঠে “জি” গ্রুপের খেলায় ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে অভিষেক ম্যাচেই গোল পান মিকাহ হ্যামিল্টন। ১৯ মিনিটে তার গোলেই বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা লিড পায়। ৬২ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন অস্কার বব। রেড স্টারের হয়ে ৭৬ মিনিটে বল জালে জড়ান হোয়াং ইন-বিওম। স্পট কিক থেকে কালভিন ফিলিপস ৮৫ মিনিটে বল জালে জড়ান। শেষ সময়ে হেড থেকে গোল করে রেড স্টারের হয়ে ব্যবধান কমান আলেকসান্ডার কাটাই। ম্যানসিটি ছয় ম্যাচের সবকটিতে জয়ের মধ্য দিয়ে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন।

অন্যদিকে, বুধবার রাতে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের সঙ্গে ড্র করেও পিএসজি টিকে থাকল ইউরোপের সর্বোচ্চ ক্লাব আসরে।

সিগনাল ইদুনা পার্কে স্বাগতিক বরুশিয়া ডর্টমুন্ড ও পিএসজির ম্যাচ শেষ হয় ১-১ সমতায়। “এফ” গ্রুপ থেকে এই দুটি ক্লাবই আসরের শেষ ষোলোতে জায়গা করে নিয়েছে। একই সময়ে মাঠে গড়ানো আরেক ম্যাচে নিউক্যাসল ইউনাইটেডকে তাদের মাঠেই ২-১ গোলে হারিয়েছে এসি মিলান। ফলে পিএসজির কপাল খুলে গেছে।

৬ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে জার্মান ক্লাব ডর্টমুন্ড। সমান ম্যাচে পিএসজি ও ইতালিয়ান ক্লাব মিলানের পয়েন্ট সমান ৮। মুখোমুখি লড়াইয়ে এগিয়ে থাকায় পিএসজি গ্রুপ রানার্সআপ হলেও মিলান ছিটকে গেছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে। তবে তৃতীয় হওয়ায় মিলান ঠাঁই পেয়েছে উয়েফা ইউরোপা লিগে। তলানিতে থাকা ইংলিশ ক্লাব নিউক্যাসলের পয়েন্ট ৫। এই মৌসুমে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় ঘটেছে তাদের।

গত অক্টোবরে পিএসজির মাঠে ৩-০ গোলে হেরেছিল মিলান। নভেম্বরে ফিরতি দেখায় নিজেদের মাঠে ২-১ গোলে জিতেছিল তারা। মুখোমুখি লড়াইয়ে দুই দলের পয়েন্ট সমান হলেও গোল ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টিকে গেছে পিএসজি।

About

Popular Links