Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ভারতীয় বেটিং অ্যাপ কেলেঙ্কারিতে সাকিবের বোনের নাম

একটি অনলাইন গেমিং প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে বিপুল আর্থিক দুর্নীতির সন্ধান পায় ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট

আপডেট : ১০ মার্চ ২০২৪, ০৬:৪৯ পিএম

ভারতের মহাদেব অনলাইন বেটিং অ্যাপ কেলেঙ্কারিতে নাম এসেছে বাংলাদেশি ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের বোনের নাম। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে ও আজ তাক–এ জানিয়েছে, সাকিবের ছোট বোন জান্নাতুল হাসান একটি অনলাইন বেটিং (বাজি ধরা) অ্যাপে বিনিয়োগ করেছেন।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট জানায়, এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে মাসে মহাদেব বেটিং অ্যাপ নামে একটি অনলাইন গেমিং প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে বিপুল আর্থিক দুর্নীতির সন্ধান পায় ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। তদন্তে নেমে এতে ভারতের অনেক রথী-মহারথীর সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পায় তারা।

ইন্ডিয়া টুডে জানায়, মহাদেব বেটিং অ্যাপ তদন্তে গ্রেপ্তার করা হয়েছে দুই ব্যবসায়ী গিরিশ তালরেজা ও সুরুজ চোখানিকে।

ইডি সূত্রের বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়, সুরুজ চোখানি কাঠমান্ডুর একটি ক্যাসিনোতে ৪০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন। এর পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশে একটি বেটিং অ্যাপেও বিনিয়োগ করেন। এতে তার অংশীদার ছিলেন তারকা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের বোন জান্নাতুল হাসান।

অনলাইন বেটিং অ্যাপে বোনের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ প্রসঙ্গে সাকিব আল হাসানের বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে তার বোন জান্নাতুলের সঙ্গেও যোগাযোগ করা যায়নি।

এর আগে, স্পট ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পাওয়ার বিষয়ে আইসিসিকে না জানিয়ে আলোচনায় এসেছিলেন সাকিব আল হাসান। সে কারণে ২০১৯ সালের অক্টোবরে এক বছরের জন্য ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন তিনি। ২০২২ সালে একটি বেটিং প্রতিষ্ঠানের পণ্যদূত হয়েও সমালোচিত হন তিনি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) চাপে এই অলরাউন্ডার সেই চুক্তি থেকে সরে আসেন।

গত ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মাগুরা-১ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন সাকিব আল হাসান।

About

Popular Links