Tuesday, June 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

টি-২০ বিশ্বকাপ: সেমিফাইনালে চোখ তাওহিদ হৃদয়ের

এবার সেমিফাইনালে স্বপ্ন সীমাবদ্ধ রাখলেও দ্রুতই বাংলাদেশের হয়ে বিশ্বকাপ জিততে চান এই ক্রিকেটার

 

 

আপডেট : ২৬ মে ২০২৪, ০৫:৩৬ পিএম

আর মাত্র কয়েকদিন পরেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণের সবচেয়ে বড় আসরের ঠিক আগ মুহূর্তে র‌্যাংকিয়ে অনেক পেছনে থাকা দল যুক্তরাষ্ট্রের কাছে সিরিজ হেরেছে নাজমুল হোসেন শান্ত’র দল। তবে শেষ ম্যাচে ব্যাটে-বলে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় টিম টাইগার। তাতে ভক্তরা কিছুটা হলেও আশায় বুক বাঁধতে শুরু করেছেন।

আর ভক্তদের এই আশার পালে যেন বাড়তি হাওয়া দিলেন দলের তরুণ ক্রিকেটার তাওহিদ হৃদয়। কেননা, তার চোখ যে এবার বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে।

রবিবার (২৬ মে) নিজেদের সোশ্যাল হ্যান্ডেলে লাল সবুজের স্বপ্ন শিরোনামে তাওহিদ হৃদয়ের একটি ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

সেখানেই নিজের ক্রিকেটার হয়ে ওঠার গল্পের পাশাপাশি ক্যারিয়ার ভাবনা ও বিশ্বকাপ নিয়ে স্বপ্নের কথা জানান এই তরুণ টাইগার।

এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সম্ভাবনা প্রসঙ্গে তাওহিদ হৃদয় বলেন, “এবারের বিশ্বকাপে নিজের নামের পাশে কিছু দেখতে চাই না। আমি চাই দল যেন ভালো করে। আমার জায়গা থেকে অবশ্যই নিজের সেরাটা দিয়ে অবদান রাখার চেষ্টা করব। আমি চাই আমার দল কমপক্ষে সেমিফাইনাল খেলুক।”

তবে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য লক্ষ্যটাকে সেমিফাইনাল পর্যন্ত সীমিত রাখলেও দ্রুতই বিশ্বকাপ জিততে চান তাওহিদ হৃদয়।

২০২০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ভারতকে হারিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জেতা দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য তাওহিদ হৃদয় বলেন, “চোখ খুলেও এখনো অনুভব করি যে কী হয়েছিল সেই বিশ্বকাপে (অনূর্ধ্ব-১৯)। এখন আমাদের সময় এসেছে জাতীয় দলের হয়ে এশিয়া কাপ, বিশ্বকাপের মতো জায়গায় গিয়ে ভালো করা, কাপ নেওয়া, ভালো করা না, কাপ নিতে চাই। শুধু আমি না, আমরা সবাই চাই। আমরা যদি আমাদের দিক থেকে ভালো করতে পারি, তাহলে বেশি দেরি নেই।”

গত বছর ওয়ানডে বিশ্বকাপে ৭ ম্যাচ খেলে ৬ ইনিংসে ব্যাট করে হৃদয় রান করেছেন ১৬৪। সেই বিশ্বকাপজুড়েই হৃদয়ের ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে। অভিষেকের পর থেকে ব্যাটিং অর্ডারের চার নম্বরে ব্যাট করা হৃদয়কে বিশ্বকাপে কখনো টপ অর্ডার, কখনো লোয়ার মিডল অর্ডারে খেলানো হয়।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “২০২৩–এ যেটা হয়েছে, হয়তো আমাকে নিয়ে দলের পরিকল্পনা ছিল এমন। কিন্তু ২০২৩–এর বিশ্বকাপের আগে আমি অন্য জায়গায় ব্যাটিং করেছি। সব সময় ওপরেই খেলেছি। কিন্তু বিশ্বকাপে যখন নিচে ব্যাটিং করেছি, ছয়ে-সাতে, তখন আমার জন্য মানিয়ে নেওয়া কঠিন হয়েছিল। এরপরও চেষ্টা করেছি। দল আমার কাছে যা চেয়েছে, তা দিয়ে কন্ট্রিবিউট করার জন্য। হ্যাঁ, কিছু ম্যাচ পারিনি।”

তবে ২০২৩ সালে নিজের পারফরম্যান্সকে খারাপ বলতে চান না উল্লেখ করে তাওহীদ হৃদয় বলেন, “অনেকেই বলে বিশ্বকাপটা ভালো হয়নি। আপনি যদি দেখেন, ছয়-সাত এমন এক পজিশন, যেখানে প্রতিদিনই ভালো খেলবে না। এমন কোনো ব্যাটসম্যান নেই যে নিচে নেমে নিয়মিত ভালো করবে। এই জায়গাটা এমন, যেখানে আপনি দু-একদিন খেলবেন। আমার কাছে মনে হয় না আমি খুব খারাপ খেলেছিলাম। আমি ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ওপরে ব্যাট করার সুযোগ পেয়েছি। ভারতের সঙ্গে রান করতে পারেনি আর অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আমি ৭৪ করেছিলাম। ভালো একটা অভিজ্ঞতা ছিল। অনেকে বলে মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ। আমি এখনো তা দেখিনি। আল্লাহ আমাকে যেন সেটা না দেখায়। যেন দলের জন্য সব সময় অবদান রেখে যেতে পারি।”

প্রসঙ্গত, আগামী ১ জুন থেকে শুরু হবে টি-২০ বিশ্বকাপ। এবারের  বিশ্বকাপে যৌথভাবে আয়োজন করছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্র। চার গ্রুপে ভাগ হয়ে মোট ২০টি দল লড়াই করবে ক্রিকেটের ক্ষুদ্রতম সংস্করণের নবম আসরের শিরোপার জন্য।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশ পড়েছে “ডি” গ্রুপে। তাদের গ্রুপসঙ্গী- শ্রীলঙ্কা, নেদারল্যান্ডস, দক্ষিণ আফ্রিকা ও নেপাল। ৭ জুন নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

 

 

About

Popular Links