• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:১৯ রাত

হোচটের কারণ দর্শালেন তিন কোচ

  • প্রকাশিত ০২:৫৭ দুপুর জুন ১৯, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট ০৩:১৮ বিকেল জুন ১৯, ২০১৮
neymar-2-1529357005465-1529398224697.jpg
ব্রাজিল-সুইজারল্যান্ডের ম্যাচে নেইমার। _ছবি: রয়টার্স

বিশ্বকাপের জায়ান্ট তিনদল আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল-জার্মানির এমন পারফর্মেন্সে হতাশ সমর্থকবৃন্দ। তারচেয়েও হতাশাগ্রস্থ তিনদেশের দায়িত্বপ্রাপ্ত কোচ। বললেন, কি কারণে এমন বাজে  পারফর্ম করলো দলগুলো?

পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল, বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জার্মানি কিংবা লিওনেল মেসি’র আর্জেন্টিনা; প্রত্যেকে নিজেদের ভিন্ন ভিন্ন রণনীতি নিয়ে মাঠের লড়াই শুরু করলেও প্রতিপক্ষের সামনে তা কোনো কাজে আসেনি।

সুইজারল্যান্ডের সাথে ১-১ গোলে ‘ড্র’ করবার পরে ব্রাজিল কোচ তিতে জানিয়েছেন উদ্বিগ্নতার কারণেই নাকি এমন নড়বড়ে পারফরম্যান্স করেছে তার শিষ্যরা। 

ফেভোরিট ব্রাজিলের পক্ষে ম্যাচের ২০তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে লম্বা শটে জালে বল জড়ান ফিলিপ কৌতিনহো। তবে স্টিভেন জুবের’র শক্তিশালী হেডারে দ্বিতীয়ার্ধ্বের ৫মিনিট যেতেই সমতায় ফেরে সুইজারল্যান্ড।

ম্যাচের পুরো সময় জুড়েই সুইস’রা অনেক গোছানো ছিলো। অন্যদিকে, নেইমার-জিসাস-পোলিনহো’রা অনেক সুযোগ তৈরি করলেও সেখানে থেকে ফলাফল বের করতে ব্যর্থ হয়েছে। ফলে আর্জেন্টিনা ও জার্মানির পর সর্বশেষ ব্রাজিলও টুর্নামেন্টে হোঁচট খাওয়ার দলের সারিতে নাম লিখিয়েছে।

ব্রাজিলের পরবর্তী ম্যাচ শুক্রবার কোস্টারিকার বিপক্ষে । কোস্টারিকা প্রথম ম্যাচে সার্বিয়ার বিপক্ষে ১-০ গোলে পরাস্থ হয়েছে।

এর আগে রোববার জার্মান কোচ জোয়াকিম লো জানান, বিশ্বকাপের মেক্সিকোর কাছে পরাজয়ের প্রথম ম্যাচে সাময়িক ভঙ্গুরতার জন্য তার দলের রক্ষণভাগে পরিবর্তনের বিশেষ কোনো প্রয়োজন নেই। 

সাম্প্রতিক ম্যাচগুলোতে জার্মানির খেলায় কিছু দুর্বলতার পূণরাবৃত্তি ঘটছে। আর মেক্সিকো সেই ভুলকেই কাজে লাগিয়ে বার বার বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের চাপে ফেলেছে।

জার্মানি পরবর্তী ম্যাচগুলোতে ঘুরে দাঁড়াবে_এমন বক্তব্যে যদিও খুব কম দর্শকই বিরোধিতা করবেন। তবে এই মূহুর্তে নিজেদের চেনা ছন্দে নেই ৪বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। 

তবে সবার আগে অঘটন ঘটানো আর্জেন্টিনার কোচ শনিবার অত্যন্ত স্থুলভাবে বিশ্লেষন করার চেষ্টা করে জানান, আর্জেন্টিনা অহেতুক মাঝমাঠে বল পাসিং করে সময় ক্ষেপন করেছে। যেখানে তিনি নিজে চাইলেই মাচেরানো আর বিজিলাকে রক্ষণভাগের উপরে খেলিয়ে আক্রমণে বাড়তি শক্তি যোগ করতে পারতেন। এছাড়া লিওনেল মেসির পেনাল্টি ব্যর্থতায় হতাশ তিনি।

এই ‘ড্র’ এর ফলে গ্রুপ ডি’তে অস্বস্তিতে থাকছে আলবিসেলেস্তারা। 

সাম্পাওলি আরও বলেন ফ্রাঙ্কো আরমানির পরিবর্তে উইলি ক্যাবালেরোকে গোলরক্ষার দায়িত্ব দেন কেননা আরমানির চাইতে ভালো ফর্মে আছে। তবে ম্যাচে পুরো সময়ের তাকে দেখে তা মনে হয়নি।