• শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০২ রাত

মরক্কোর সাথে ২-২ সমতায় নক-আউট পর্বে স্পেন

  • প্রকাশিত ০১:০২ দুপুর জুন ২৬, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট ০১:০৩ দুপুর জুন ২৬, ২০১৮
aspas-1529958038523-1529996255776.jpg
মরক্কোর বিপক্ষে ইগোস আসপাসের গোল। ছবি: রয়টার্স

রাশিয়া বিশ্বকাপে মরক্কোর প্রথম জয়ের স্বপ্নকে ধূলিসাৎ করা ইগোস আসপাসের অতিরিক্ত সময়ের গোলে ২-২ সমতায় মাঠ ছাড়ে স্পেন। এই ‘ড্র’ তে ৫ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ-বি চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ১৬ নিশ্চিত করেছে ইনিয়েস্তা-রামোস-পিকে'রা।

রাশিয়া বিশ্বকাপে মরক্কোর প্রথম জয়ের স্বপ্নকে ধূলিসাৎ করা ইগোস আসপাসের অতিরিক্ত সময়ের গোলে ২-২ সমতায় মাঠ ছাড়ে স্পেন। এই ‘ড্র’ তে ৫ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ-বি চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ১৬ নিশ্চিত করেছে ইনিয়েস্তা-রামোস-পিকে,রা।

ইরানের বিপক্ষে পর্তুগালের ১-১ গোলে ‘ড্র’ এর পর সমান ৫ পয়েন্ট থাকলেও গোলের সংখ্যা বেশি থাকায় স্পেনের পর রানার-আপ হয়ে ২য় রাউন্ডে জায়গা পেলো রোনালদো-পেপে’রা। 

টানা ২ ম্যাচ পরাজয়ে গ্রুপ-বি থেকে মরক্কোর বিদায় আগেই নিশ্চিত ছিলো। তবে স্প্যানিশ বধের অনুপ্রেরণা নিয়ে দেশে ফিরতেই হয়তো শুরু থেকেই প্রাণপণ খেলেছে মরক্কো। তারই ফলশ্রুতিতে ম্যাচের ১৪ মিনিটে খালিদ বৌতাইদ দলকে লিড এনে দেন।

কালের অন্যতম সেরা ডিফেন্ডার সার্জিও রামোসের পা থেকে বল কেড়ে একা লনিয়ে যান লক্ষ্যে। ঠান্ডা মাথায় স্প্যানিস গোলরক্ষক ডেভিড দে গিয়া’কে বোকা বানিয়ে তার দু’পায়ের ফাঁক দিয়ে নেট স্পর্শ করে আসরে মরক্কোর প্রথম গোল এনে দেন খালিদ।

তবে চাপ সামলিয়ে ৫ মিনিট পরেই আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার বাড়িয়ে দেয়া বলে জাল ভেদ করে দলকে সমতায় ফেরান ইসকো। 

হাফটাইমে যাবার আগে মরক্কোকে আরও চাপে রাখতে পারতো ‘এসপানা’রা। ইনিয়েস্তার দেয়া ‘লোয়ার পাসে’ গোলমুখে দিয়েগো কস্তা পা ঠেকাতে ব্যর্থ হলে ১-১ সমতায় বিরতীতে যায় দু’দল।

দ্বিতীয়ার্ধ্বে মরক্কো আবারও নতুন উদ্যমে চাপে ফেলতে থাকে ২০১০ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। ম্যাচের ৮১ মিনিটে নরদিন আম্রাবাতের গোলে বিজয়ের স্বাদটা যেনো পেয়েই যাচ্ছিলো উত্তর আফ্রিকান দেশটি। তবে নির্ধারিত ৯০ মিনিটের পরের মিনিটেই ইগোস আসপাসের ‘ব্যাক হিলে’র কল্যাণে এ যাত্রায় বেঁচে যায় স্পেন। মরক্কোর এ হারে কপাল পুড়েছে ইরানেরও! 

১ জুলাই মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে গ্রুপ-এ রানার আপ স্বাগতিক রাশিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে কোচ ফার্নান্দো হিয়েরোর শিষ্যরা।