• শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০২ রাত

কে হবে এবারের বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন?

  • প্রকাশিত ০২:২৬ দুপুর জুন ২৯, ২০১৮
world-cup-group-draw-predictions-1530260702595.jpg

৩০ জুন থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ-২০১৮ এর নকআউট পর্ব। দিন যত ঘনিয়ে আসছে, বিশ্বকাপের বিজয়ী কে হতে পারে তা নিয়েও জল্পনা কল্পনা বাড়ছে তত বেশি। স্কাইস্পোর্টসের প্রতিবেদনের আলোকে এবারের বিশ্বকাপের সম্ভাব্য চ্যাম্পিয়নের হিসেব-নিকেশটা একটু যাচাই করে নেওয়া যাক-

আর্জেন্টিনা: শেষ ষোলতে উঠতে উঠতে আর্জেন্টিনার বেশ বেগ পেতে হয়েছে। সামনে আছে কঠিন প্রতিপক্ষ ফ্রান্স। লাইনআপের দিক থেকে এবার অন্যতম সেরা অবস্থানে আছে ফ্রান্স। তাই ফ্রান্সকে যদি দেশে ফেরত পাঠাতে পারে তাহলে কাপ জয়ে আশাবাদী হয়ে উঠতে পারে মেসিরা। 

ব্রাজিল: কোস্টা রিকার সঙ্গে অতিরিক্ত সময়ের জয় আর সার্বিয়ার সঙ্গে সহজ জয় পেলেও সুইজারল্যান্ডের মত টিমের সাথে ড্র করতে হয়েছিল ব্রাজিলের। তবে তারপরও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে নকআউটে ওঠায় পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের ওপর প্রত্যাশা এখন আরও বেড়ে গেছে। জার্মানির বিদায়ের ফলে র্যাং কিং-এর দিক থেকে অপেক্ষাকৃত পেছনের দল মেক্সিকোর সঙ্গে নকআউটে লড়বে তারা। সিলভা, মার্সেলো, কৌতিনহো, পাওলিনহোসহ বিশেষ করে নেইমারের পারফর্ম্যান্সের উপরে অনেকখানি নির্ভর করছে জোগো বনিতোদের এবারের বিশ্বকাপ মিশন।

স্পেন: হুলেন লোপেতেগুইকে বছরের শুরুতে কোচ হিসেবে বাদ দেওয়ার পর স্পেন দলের ধারাবাহিকতা কিছুটা ব্যহত হয়। ফার্নান্দোর হিয়েরোর নেতৃত্বে স্পেনের পারফরম্যান্স আশানুরূপ না হলেও নকআউটে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই নকআউটে যায় তারা। তবে সব মিলিয়ে এবারের স্পেন দলের বিশ্বকাপ জয়ের সম্ভাবনা স্বভাবতই অপেক্ষাকৃত কম। 

ফ্রান্স: টিম লাইনআপের দিক থেকে অনেক শক্ত অবস্থানে আছে ফ্রান্স। যদিও ডেনমার্কের সাথে ড্র এর মাধ্যমে তারা গ্রুপ পর্ব শেষ করে।  তবে ’৯৮ এর বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা এবার অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী। 

পর্তুগাল: ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর উপর অনেক বেশি নির্ভর থেকেই তারা গ্রুপ পর্বে রানার্স আপ হয়েছে। দলের অন্যান্যদের পারফর্ম্যান্সের উপর নির্ভর করছে তাদের বিশ্বকাপ মিশনের বাকি পথটা কতটা মসৃণ হয়। 

ইংল্যান্ড ও বেলজিয়াম: ফিফা র্যারঙ্কিং-এ বেলজিয়ামের বর্তমান অবস্থান বেশ উপরের দিকে হলেও প্রত্যাশার দিক থেকে উপরে বর্ণিত দলগুলোর তুলনায় বেলজিয়াম পিছিয়েই আছে। সেদিক থেকে ইংল্যান্ডের উপরও প্রত্যাশা অনেক কম। তবে ফুটবল অঘটনের খেলা, তাই কী হয়ে আগে থেকে বলা যায় না কিছুই। 

বিশ্বকাপের নকআউট পর্ব নিয়ে অধীর অপেক্ষায় আছে ফুটবল প্রেমীরা। অনেক আশা জাগানিয়া দলেরও দুর্ভাগ্য লেখা হয়ে যেতে এই পর্বে। আবার অপ্রত্যাশিতভাবে পর্ব পার করতে পারে কম প্রত্যাশায় থাকা কোনো দল। কী ঘটে তা-ই এখন দেখার অপেক্ষা।