• মঙ্গলবার, এপ্রিল ০৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:২৮ রাত

টাইব্রেকারে জয় ক্রোয়েশিয়ার, হতাশ ডেনমার্ক

  • প্রকাশিত ১০:১৬ সকাল জুলাই ২, ২০১৮
croatia-danijela-6.jpg
জয়ের নায়ক দানিয়েল সুবাসিচকে কাঁধে চড়ালেন ক্রোয়েশিয়ার খেলোয়াড় ভিদা। ছবি: রয়টার্স

টাইব্রেকারে ৩-২ গোলের ব্যবধানে ডেনমার্ককে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল ক্রোয়েশিয়া।

শেষ পর্যন্ত খেলাটা টাইব্রেকার অবধি গড়ালো। লুকা মদরিচের বীরত্ব দেখানো ম্যাচের উত্তেজনাকর মুহূর্তে ক্যাস্পার স্মেইকেল পেনাল্টি প্রতিরোধ করলেন ঠিকিই কিন্তু টাইব্রেকারে দলকে জয় এনে দিতে পারলেন না। তবে অন্য প্রান্তে ক্রোয়েশিয়ার গোলরক্ষক দানিয়েল সুবাসিচ টাইব্রেকারে তিনটি শট ঠেকান। তার সাফল্যে টাইব্রেকারে ৩-২ গোলে ডেনমার্ককে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল ক্রোয়েশিয়াক। এর আগে খেলায় ১-১ সমতা ছিল। 


৪ মিনিটে ২ গোলে ডেনমার্ক ও ক্রোয়েশিয়ার ম্যাচ জমে উঠেছিল। নির্ধারিত সময়ে ১-১ গোলে সমতা ছিল ম্যাচে। অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয়ার্ধেই ম্যাচ জিততে পারত ক্রোয়েটরা। কিন্তু মদরিচের পেনাল্টি শট ব্যর্থ করে দেন স্মেইকেল। তখন খেলা গড়ায় টাইব্রেকারে। 

টাইব্রেকারে প্রথম দুটি শট সফলভাবে লক্ষ্যভ্রষ্ট করেন সুবাসিচ ও স্মেইকেল। পরের দুটি করে শটে দুই দলই লক্ষ্যভেদ করে। তবে স্কোনের চতুর্থ শট রুখে দেন সুবাসিচ, স্মেইকেল তারপরই পিভারিচকে ঠেকিয়ে ম্যাচে উত্তেজনা ফেরান। তবে ম্যাচের ফল নির্ধারণ হয়ে যায় পঞ্চম শটে। 

তার আগে ম্যাচ শুরুর ৫৮ সেকেন্ডের মাথায় এগিয়ে যায় ডেনমার্ক। মাতিয়াস জর্গেনসেনের গোলে মেতে উঠে ডেনমার্ক। এই গোলের মধ্য দিয়ে বিশ্বকাপে দ্বিতীয় দ্রুততম গোলের রেকর্ড গড়ে নিল। 

তবে ডেনিসদের বেশিক্ষণ আনন্দে থাকতে দেয়নি ক্রোয়েশিয়া। ৪ মিনিটের মাথায় দলকে সমতায় ফেরান মারিও মানজুকিচ। 

বিশ্বকাপে এনিয়ে চতুর্থবার চার মিনিটের মধ্যে দুই গোল হলো। আর দুই দলের চার মিনিটে দুই গোল দেওয়ার ঘটনা ঘটল কেবল দ্বিতীয়বার।

খেলার বাকি সময়টুকু চলেছে আক্রমণ এবং পাল্টা আক্রমণে। দুই দলই লড়াই করে গিয়েছে নিজেদের এগিয়ে নেওয়ার জন্য। কিন্তু শেষ পর্যন্ত খেলা গিয় ঠেকলো টাইব্রেকারে। ৩-২ গোলের জয়ে ডেনমার্ককে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল ক্রোয়েশিয়া।  

১৯৯৮ সালের পর প্রথমবার নকআউটে জিতল ক্রোয়েশিয়া। আগামী ৭ জুলাই কোয়ার্টার ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ রাশিয়া।