• মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৪ রাত

পড়ার টেবিলে ফেরার অনুরোধ জানালেন সাকিব

  • প্রকাশিত ১১:৫৫ রাত আগস্ট ৩, ২০১৮
Sakib al hasan
সাকিব আল হাসান। ফাইল ছবি

“তোমরা যা করেছো, তা এদেশে ইতিহাস হয়ে থাকবে। এ অর্জন সফল হবে তোমাদের পড়ার টেবিলে ফিরে যাওয়ার মাধ্যমে।”

আর সবার মতো সাকিব আল হাসানও মর্মাহত রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায়। ‘নিরাপদ সড়ক’ নিশ্চিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনেও গর্বিত তিনি। তবে আপাতত রাজপথ থেকে সরে তাদের পড়ার টেবিলে ফিরে যাওয়ার অনুরোধ করেছেন বাংলাদেশের এই ক্রিকেটার ।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় ব্যস্ত সময় পার করলেও দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে রাজপথে নামা শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের খোঁজ-খবর নিয়মিত রাখছেন সাকিব। নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে দেওয়া পোস্টে আন্দোলন নিয়ে গর্ব প্রকাশ করলেও, এখন রাজপথ থেকে ঘরে ফেরার অনুরোধ করেছেন তিনি।

শুক্রবার সন্ধ্যায় দেওয়া ওই পোস্টের শুরুটা করেছেন সাকিব এভাবে, “আমি এখন ফ্লোরিডায় আছি। আজ এক গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে আমার তরুণ ফ্যানদের উদ্দেশ্যে কিছু বলতে চাই। গত ২৯ জুলাই রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাস চাপায় দুই স্কুল শিক্ষার্থী দিয়া ও আব্দুল করিম নিহত হওয়ার ঘটনায় আমি প্রচণ্ড মর্মাহত ছিলাম। কিন্তু যখন দেখলাম তাদের সহপাঠী থেকে শুরু করে সারাদেশের ছাত্র-ছাত্রীরা দোষীদের শাস্তি দাবি ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেছে, তখন গর্ববোধ করেছি বাংলাদেশের একজন নাগরিক হিসেবে। দেশে থাকলে আমিই তোমাদের অটোগ্রাফ নেওয়ার জন্য চলে আসতাম।”

উল্লেখ্য, নিহত শিক্ষার্থী দিয়া খানম মীম ও আব্দুল করিম স্কুল নয়, কলেজ শিক্ষার্থী ছিলেন।  

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের প্রশংসার জোয়ারে ভাসিয়ে পোস্টের পরের অংশে লিখেছেন, “তোমাদের সাধুবাদ জানিয়ে বলতে চাই, তোমাদের দাবি কার্যকর হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিহতদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা ছাড়াও নিরাপদ সড়ক আইন করতে আন্তরিকভাবে কাজ করছেন। ইতোমধ্যে অভিযুক্ত পরিবহনের রুট পারমিট বাতিল সহ পাঁচ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ অবস্থায় তোমাদের কাছে বিনীত অনুরোধ করবো, ক্লাসে ফিরে পড়াশোনায় মনোনিবেশ করতে। তোমরা যা করেছো, তা এদেশে ইতিহাস হয়ে থাকবে। এ অর্জন সফল হবে তোমাদের পড়ার টেবিলে ফিরে যাওয়ার মাধ্যমে।”

দাবি পূরণ না হলে নিজে আন্দোলনে নামার অঙ্গীকারও দিয়ে রেখেছেন সাকিব পোস্টের শেষ অংশে, “তোমাদের দাবি পূরণ হয়েছে এবং হচ্ছে। ব্য ত্যয়য় ঘটলে আমাকে পাবে তোমাদের সঙ্গে।”