• রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৩ রাত

আজ অঘোষিত সেমিফাইনালে মুখোমুখি বাংলাদেশ-পাকিস্তান

  • প্রকাশিত ০৫:০১ সন্ধ্যা সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮
বাংলাদেশ-পাকিস্তান
বাংলাদেশ-পাকিস্তান। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

ওয়ানডে ম্যাচের পরিসংখ্যানে দু’দলের ৩৫ দেখায় ৩১টিতেই জয় পাকিস্তানের। তবে সর্বশেষ তিন ম্যাচে ২০১৫ সালে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশের সুখস্মৃতি আছে বাংলাদেশের ঝুলিতে।

এশিয়া কাপ ২০১৮’র ফরম্যাট বা ফিক্সচারে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো সেমিফাইনাল না থাকলেও সুপার ফোরের পয়েন্ট তালিকা বলছে অন্য কথা। আজ বিকেলে বাংলাদেশ-পকিস্তানের ম্যাচটি হয়ে গেছে এক অঘোষিত সেমিফাইনাল। 

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে আজ বুধবার বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৫টায় মাঠে গড়াবে ম্যাচটি। 

চলতি এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচেই গ্রুপ পর্বের প্রতিপক্ষ শ্রীলংকাকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে উড়ন্ত সূচনাই করেছিল টিম টাইগার। তবে সে সুখস্মৃতি ফিকে হয়েছিল গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আফগানিস্তান আর সুপার ফোরের ভারতের বিপক্ষে লজ্জাজনক পরাজয়ে।

ইনজুরির শিকার হয়ে দলের ‘আর্টিলারি’ ওপেনিং ব্যাটসম্যান তামিম ইকবালের অনুপস্থিতিটা এই দু’ম্যাচে টের পেলেও সুপার ফোরের বাঁচা-মরার লড়াইয়ে আফগানিস্তানের বিপক্ষে নাটকীয় এক জয় তুলে নেয় অধিনায়ক মাশরাফির দল।

শেষ ওভারে মুস্তাফিজের অনবদ্য বোলিংয়ে আফগানদের ৩ রানে পরাজিত করে টুর্নামেন্টে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। আর এই জয়ে হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছে টাইগাররা। 

অন্যদিকে, প্রতিপক্ষ পাকিস্তানের সমীকরণটা একটু বাড়তি সাহস যোগাবে মাশরাফি-সাকিব-মুশফিকদের। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে পর পর দুই ম্যাচে কোনো প্রতিরোধই গড়তে পারেনি তারা। উপরন্তু, আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় তুলতে রীতিমত নাভিশ্বাস উঠে গিয়েছিল পাকিস্তানের।

ওয়ানডে ম্যাচের পরিসংখ্যানে দু’দলের ৩৫ দেখায় ৩১টিতেই জয় পাকিস্তানের। তবে সর্বশেষ তিন ম্যাচে ২০১৫ সালে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশের সুখস্মৃতি আছে বাংলাদেশের ঝুলিতে। 

অবশ্য পরিসংখ্যান নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছেন না টাইগার কোচ। তিনি বরং চিন্তিত পাকিস্তানের অপ্রত্যাশিত পারফরম্যান্স নিয়ে। স্টিভ রোডস বলেন, “তারা (পাকিস্তান) কঠিন প্রতিপক্ষ কিন্তু তারচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে যে তাদের নিয়ে নিশ্চিত করে কিছুই বলা যায় না। প্রত্যাশা করুন যেন দিনটি তাদের না হয় আর আমরাও ভালো খেলি, তাহলেই জয় পাওয়া যাবে।” 

পাকিস্তানকে নিয়ে না ভেবে নিজেদের পারফরম্যান্স নিয়ে ভাবনার দিকে গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, “আমরা অনুমান করতে পারবো না যে পাকিস্তানের কোন চেহারাটা সামনে আসবে। এটা আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। তবে আমাদের নিয়ন্ত্রণে যেটা আছে, তা হলো আমাদের পারফরম্যান্স। আমাদের সেটা সঠিকভাবে করতে হবে।” 

এশিয়া কাপের গত দুই আসরে ফাইনালে খেলেও অধরা রয়ে গেছে শিরোপা। এবার সেই স্বপ্নপূরণের মিশনে যাওয়া বাংলাদেশের সামনে আর দু’টো ধাপ। বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের প্রত্যাশা আর শুভকামনা থাকছে টাইগারদের জন্য!