• বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ০২, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৫ সকাল

রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে আশাহত ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’

  • প্রকাশিত ১২:১৪ দুপুর অক্টোবর ৩, ২০১৮
ronaldo-funny
ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো

রোনালদোর সাথে চুক্তিকারী প্রথম কোনো প্রতিষ্ঠান হিসেবে ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’ এই ঘটনাটি নিয়ে মুখ খুলেছে।

নিজেদের শুভেচ্ছা দূত ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর বিরুদ্ধে আসা ধর্ষণের অভিযোগে আশাহত হয়েছে ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’ কর্তৃপক্ষ।

ক্যাথরিন ম্যায়োগ্রা নামের ৩৪ বছর বয়সী এ নারীর অভিযোগ রিয়াল মাদ্রিদে খেলার সময় লাস ভেগাসের একটি হোটেলে তাকে আক্রমণ করেছিলেন রোনালদো। পরে সেখানকার একটি বাজীগর চক্রের সহায়তায় তদন্তটি আটকে দেন আর ৩,৭৫,০০০ মার্কিন ডলার দিয়ে বিষয়টিকে সেখানেই ধামাচাপা দিতে বলেন ‘সিআর-সেভেন’।

সংবাদমাধ্যম ইন্ডিপেন্ডেন্ট খবর প্রকাশ করেছে, অভিযোগকারী ম্যায়োর্গার আইনজীবী পক্ষ ২০০৯ সালের এই মামলাটি পুনরায় তদন্ত শুরু করতে দাবি করেছেন বলে সোমবার (১ অক্টোবর) নিশ্চিত করেছে লাস ভেগাস পুলিশ।

রোনালদোর সাথে চুক্তিকারী প্রথম কোনো প্রতিষ্ঠান হিসেবে ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’ এই ঘটনাটি নিয়ে মুখ খুলেছে।

সেবাধর্মী এ প্রতিষ্ঠানটির এক মূখপাত্র জানিয়েছেন, “গত ২৪ ঘন্টা ধরে রোনালদোর বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ দেখছি তাতে আমরা সত্যিই খুব আশাহত। আমরা এ বিষয়ে আরও তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা করছি।” 


আরও পড়ুন: রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ


উল্লেখ্য যে ২০১৬ সাল থেকে ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’র শুভেচ্ছা দূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

রোনালদোর আইনজীবী স্পষ্টভাবে এই অভিযোগ অস্বীকার করে ডের স্পিগেল প্রতিবেদনটিকে মিথ্যা এবং অবৈধ হিসেবে আখ্যা দেন। তিনি ডের স্পিগেল এর বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে মামলা করবেন বলেও সাংবাদিকদের অবহিত করেন।

রোনালদো নিজেও ইন্সটাগ্রামে প্রকাশিত এক ভিডিওতে অভিযোগটিকে মিথ্যা বলে দাবি করেছেন। পাঁচ বারের এই ব্যালানডি’অর জয়ী ভিডিওতে বলেন, “মিথ্যা, ভুয়া সংবাদ। তোমরা আমার নাম ভাঙিয়ে নিজেদের জাহির করতে চাও। এটাই স্বাভাবিক।” 

তবে এতে করে মোটেও বিচলিত নন য়্যুভেন্তাসে আসা এই পর্তুগীজ স্ট্রাইকার। বললেন, “এগুলো কাজেরই অংশ। আমি যথেষ্ট সুখী একজন মানুষ। আমার সবকিছুই ঠিক আছে।”