• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:৫৫ দুপুর

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে ফিরছেন সাকিব?

  • প্রকাশিত ০৪:৩৬ বিকেল অক্টোবর ৩১, ২০১৮
সাকিব আল হাসান
ফাইল ছবি

টাইগারদের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক বলেন, “এখনই বলা মুশকিল যে আমি খেলবো, এই নিশ্চয়তা আসলে নেই। যেভাবে উন্নতি হচ্ছে, তাতে বলা যায় সম্ভাবনা আছে।”

ইনজুরিতে বাইরে থাকা দেশের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান বাইশ গজে ফিরতে পারেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে। তবে বিষয়টি নিয়ে নিশ্চিত করে বলার পক্ষে নন সাকিব নিজেও। 

আজ বুধবার মিরপুরের হোম অব ক্রিকেটে সাংবাদিকদের এ কথা বলেছেন এই অলরাউন্ডার। 

টাইগারদের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক বলেন, “এখনই বলা মুশকিল যে আমি খেলবো, এই নিশ্চয়তা আসলে নেই। যেভাবে উন্নতি হচ্ছে, তাতে বলা যায় সম্ভাবনা আছে।”

শারীরিক অবস্থার ধারাবাহিক উন্নতির কারণে জেগেছে এই সম্ভাবনা। ফিজিওর সঙ্গেও বিশাল আলোচনা সেরে রেখেছেন সাকিব। তবে ফেরার সম্ভাবনার কথা জানালেও, কোন নির্দীষ্ট সময় বেঁধে দিতে চান না তিনি।

তিনি বলেন, ‘ফিজিওর সঙ্গে আলোচনা করেছি যে আমরা কোন সময় বেঁধে দেবো না। যখনই স্বস্তি বোধ করবো, ট্রেনিং শুরু করব হয়তো কিছুদিন পর থেকেই। সামনের সপ্তাহ থেকে স্ট্রেন্থ ট্রেনিং শুরু করতে হবে। এরপর যখন উন্নতি হতে থাকবে, ধারাবাহিকভাবে যখন দেখব যে সব দিক থেকেই খেলার ক্ষেত্রে আমার কোন সমস্যা হচ্ছে না, তখনই আসলে খেলার কথা চিন্তা করব। তার আগ পর্যন্ত আমিও খেলতে চাইব না, সেও আমাকে দিবে না।’

তবে সাকিব ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে থাকছেন কিনা, তা নির্ভর করছে সাকিবের শতভাগ ফিটনেসের ওপর। সাকিব বলেন, ‘আসলে আমরা কেউই সময় বেঁধে দিতে পারছি না। এমনও হতে পারে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের প্রথম টেস্ট থেকে খেলতে পারি, দ্বিতীয় টেস্টেও খেলতে পারি। হতে পারে ওয়ানডে পর্যন্ত নাও খেলতে পারি। তবে আমি আবারো বলছি, উন্নতি যেভাবে হচ্ছে সেই অনুযায়ী খুব বেশি সময় লাগার কথা না। আর এটাই সর্বোচ্চ চেষ্টা থাকবে যত তাড়াতাড়ি শতভাগ ফিট অবস্থায় খেলতে পারা যায়।’

আগামী ৩ নভেম্বর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। প্রত্যাশিতভাবেই সে দলে নেই সাকিব, নেই বাঁহাতি ওপেনার তামিমও। তার পরেও এই টেস্ট সিরিজ কঠিন হবে না বলে মত টেস্ট অধিনায়ক সাকিবের, ‘আমি তো কঠিন হওয়ার কোন সম্ভাবনা দেখি না। আমার মনে হয় না যে ওই রকম কোন সমস্যা হওয়ার কথা। আমাদের টিমটা এখন অনেক বেশি সামর্থ্যবান।”