• বুধবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৫ রাত

বিশ্রামের সুযোগ নেই সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নদের

  • প্রকাশিত ১২:৪০ দুপুর নভেম্বর ৫, ২০১৮
বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৫ ফুটবল দল
বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৫ ফুটবল দল। ছবি: মো: মানিক/ঢাকা ট্রিবিউন

অনূর্ধ্ব ১৪ ও ১৯ দল গঠনের গুরুত্বের কথা ভেবে সেটি বাস্তবায়নের কথাও বলেন বাফুফের এই স্ট্র্যাটিজিক ডিরেক্টর

দক্ষিণ এশিয়ার নতুন চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবল দলের যুবারা বিশ্রাম পেলেন মাত্র দুই দিন। আজ সোমবার থেকেই সিলেটের বিকেএসপি’তে যুবা ফুটবলারদের সাথে সকল কোচিং স্টাফদের নিয়ে শুরু হচ্ছে আবাসিক প্রশিক্ষণ ক্যাম্প। 

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের ট্যাকনিকাল ও স্ট্র্যাটিজিক ডিরেক্টর পল থমাস স্মলি বলেন, মধ্য এশিয়ার সাথে দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবলের গুণগত পার্থক্য ঘোঁচানো ও তাদের ছাড়িয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে যুবাদের খেলার মান বৃদ্ধিতে অনেক কাজ করতে হবে।   

গতকাল রবিবার কোচ মোস্তফা আনোয়ার পারভেজ বাবুর নেতৃত্বে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ টুর্নামেন্টের অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ যুবারা নেপাল থেকে দেশে ফিরেছে।  

এদিকে জাতীয় নারী ফুটবল দলের এক সংবাদ সম্মেলনে নিজের বক্তব্যের শুরুতেই অনূর্ধ্ব-১৫ দলের এ অর্জনে অভিনন্দন জানিয়েছেন পল থমাস স্মলি।

সংবাদ সম্মেলনের পর ঢাকা ট্রিবিউনকে এই চ্যাম্পিয়নদের নিয়ে বাফুফের ভবিষ্যত পরিকল্পনার কথা জানান তিনি।

স্মলি জানান, “ঢাকায় ২ দিন অবস্থানের পর গেম ডেভেলপমেন্টের জন্য সিলেটে পাঠানো হবে দলটিকে। আমরা দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা করছি। আমরা যা করছিলাম তা চালিয়ে যেতে হবে। পাশাপাশি সামনের বছরকে মাথায় রেখে অন্যান্য বয়স ভিত্তিক দলগুলো থেকে খেলোয়াড় বাছাই করতে হবে।” 

ধারাবাহিকভাবে প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের মধ্যে রেখে এই ফুটবলারদের আগামী বছর এএফসি বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টে খেলানোর পরিকল্পনা রয়েছে ফেডারেশনের।

অনুর্ধ্ব ১৪ ও ১৯ দল গঠনের গুরুত্বের কথা ভেবে সেটি বাস্তবায়নের কথাও বলেন বাফুফের এই স্ট্র্যাটিজিক ডিরেক্টর।

নেপালে যাবার আগে নীলফামারীতে আড়াই মাসের আবাসিক ক্যাম্প করেছিল চ্যাম্পিয়ন এই দলটি।