• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৪ রাত

সুশান্ত ৮ ম্যাচ, সবুজ ও মামুন ৬ ম্যাচ নিষিদ্ধ

  • প্রকাশিত ০২:৫১ রাত নভেম্বর ২৯, ২০১৮
ফেডারেশন কাপ ফাইনাল
ফেদারেশন কাপের ফাইনালের শেষ দিকে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন ঢাকা আবাহনী ও বসুন্ধরা কিংসের ফুটবলাররা। ছবি: ঢাকা টিবিউন।

বুধবার বাফুফের ডিসিপ্লিনারি কমিটির একটি বৈঠকে এই শাস্তি প্রদানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ফেডারেশন কাপের ফাইনালে খেলোয়াড়দের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় বসুন্ধরা কিংসের ডিফেন্ডার সুশান্ত ত্রিপুরাকে ৮ ম্যাচ, বসুন্ধরার ফরোয়ার্ড তৌহিদুল আলম সবুজ ও আবাহনীর ডিফেন্ডার মামুন মিয়া ৬ ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করেছে।

বুধবার বাফুফের ডিসিপ্লিনারি কমিটির একটি বৈঠকে এই শাস্তি প্রদনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এবাদেও, ২ ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন আবাহনী স্ট্রাইকার নাবীব নেওয়াজ জীবন। বাফুফের ডিসিপ্লিনারি কোডের ৪৪ ও ৪৬ ধারায় তাদের এই শাস্তি প্রদান করা হয়।


বাফুফের ডিসিপ্লিনারি কমিটি শাস্তি দিয়েছে আরও তিন জনকে। আবাহনীর বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনাল শেষে রেফারিকে লাঞ্ছিত করার দায়ে আরামবাগের ম্যানেজার রাশেদুল হক এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন। পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা জরিমানা হয়েছে তার। আরামবাগের দুজন বলবয় হয়েছেন আজীবন নিষিদ্ধ। এছাড়া আরামবাগ ক্লাবকে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা করেছে ডিসিপ্লিনারি কমিটি।

সুশান্ত ত্রিপুরার ৮ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি এক লাখ টাকা জরিমানা হয়েছে। বসুন্ধরার ফরোয়ার্ড তৌহিদুল আলম সবুজ ও আবাহনীর ডিফেন্ডার মামুন মিয়াকেও ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।