• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৮ সকাল

বাংলাদেশের পতাকা-জার্সি বিক্রি করছেন ব্রিটিশ নারী

  • প্রকাশিত ০৮:০৯ রাত জুন ১৭, ২০১৯
চার্লটি ক্যারিন
বাংলাদেশের খেলা হলেই এখন বাংলাদেশের জার্সি-পতাকা নিয়ে মাঠের বাইরে পশরা সাজিয়ে বসছেন ব্রিটিশ নাগরিক চার্লটি ক্যারিন। ছবি: বাসস

বাংলাদেশের খেলা হলেই তিনি বাংলাদেশের জার্সি-পতাকা নিয়ে মাঠের বাইরে পশরা সাজিয়ে বসছেন

ওভাল, কার্ডিফ এবং ব্রিস্টলে বাংলাদেশের খেলার দিন বাংলাদেশের পতাকা-জার্সি বিক্রি করেছিলেন। এরপর টনটনেও বাংলাদেশের জার্সি এবং পতাকার পসরা সাজিয়ে বসেছেন বৃটিশ নারী চার্লটি ক্যারিন।

বাংলাদেশের আগের চার ম্যাচের তিন ভেন্যুতেই ভ্যান ভর্তি করে বাংলাদেশের জার্সি, ক্যাপ এবং পতাকার পসরা সাজিয়ে বসেছিলেন তিনি। ওভাল-কার্ডিফে বেশি হলেও ব্রিস্টলে বিক্রি ভালো হয়নি তার। কারণ বৃষ্টির কারনে ব্রিস্টলে শ্রীলংকার বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছিলো।

আগের খেলাগুলোর সময় চার্লটি বলেছিলেন, "বাংলাদেশের পতাকা বিক্রি করতে পেরে আমার খুবই ভালো লাগছে"।

টনটনে তিনি বলেন, "ইংল্যান্ডের বাইরে ভারতের মত বাংলাদেশের পতাকার চাহিদা বেশি। মাঠে যারাই খেলা দেখতে আসছেন বেশিরভাগ সমর্থকরা বাংলাদেশের পতাকা-জার্সি কিনছেন। আমারও খুব ভালো লাগছে বিভিন্ন ভেন্যুতে ঘুরে বাংলাদেশের পতাকা বিক্রি করতে"।

এসময় বাংলাদেশের পরের ম্যাচগুলোর ভেন্যুতেও যাবার ইচ্ছা প্রকাশ করেন চার্লটি। তিনি বলেন, "বাংলাদেশ ম্যাচের সবগুলো ভেন্যুতে আমার ভ্যান নিয়ে হাজির হবার ইচ্ছা আছে। কারণ ম্যাচের দিন বাংলাদেশের পতাকা বেশি বিক্রি হচ্ছে"।

এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের কতগুলো জার্সি-পতাকা বিক্রি হয়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, "প্রায় ৬-৭শ পতাকা-জার্সি বিক্রি হয়েছে। পতাকা ৪ থেকে ৫ পাউন্ড এবং জার্সি ১২ থেকে ১৫ পাউন্ডে বিক্রি করা হচ্ছে"।

জানা যায়, কার্ডিফে চার্লটির একটি ক্রীড়া সামগ্রীর দোকান রয়েছে। তবে, বাংলাদেশের খেলা হলেই এখন তিনি বাংলাদেশের জার্সি-পতাকা নিয়ে মাঠের বাইরে পশরা সাজিয়ে বসছেন।