• শুক্রবার, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৫১ সন্ধ্যা

পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ শাহাদাত

  • প্রকাশিত ০৪:১৬ বিকেল নভেম্বর ১৯, ২০১৯
শাহাদাত হোসেন
ফাইল ছবি। মো. মানিক/ঢাকা ট্রিবিউন

সতীর্থ খেলোয়াড় আরাফাত সানি জুনিয়রকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন শাহাদাত

সতীর্থ আরাফাত সানি জুনিয়রের গায়ে হাত তোলার অভিযোগে পাঁচ বছর সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক খেলোয়াড় ও পেসার শাহাদাত হোসেন। এর মধ্যে দুই বছরের স্থগিত নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি তাকে এক লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) এ শাস্তি ঘোষণা করে বলে জানিয়েছে ইএসপিএন। তবে নিজের শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবেন শাহাদাত। 

এর আগে রবিবার (১৭ নভেম্বর) খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে ঢাকা বিভাগ ও খুলনা বিভাগের মধ্যকার ম্যাচে সতীর্থ খেলোয়াড় আরাফাত সানি জুনিয়রকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন শাহাদার। ম্যাচ রেফারি আখতার আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

জানা গেছে, ওইদিন শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে স্বাগতিক খুলনা বিভাগের বিপক্ষে ম্যাচে বোলিংয়ের সময় আরাফাত সানি জুনিয়রকে বল ঘসে দিতে বলেন শাহাদাত। কিন্তু সানি তাতে গড়িমসি করলে ক্ষিপ্ত হয়ে মাঠের মধ্যেই সানিকে কয়েকটি চড় মারেন শাহাদাত। এসময় তাকে থামাতে ব্যর্থ হলে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ম্যাচটি থেকে শাহাদাতকে বাদ দেওয়া হয়। 

এর আগে গৃহকর্মীকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে কারাভোগে করতে হয়েছিল শাহাদাতকে। ২০১৭ সালেও তার বিরুদ্ধে এক সিএনজিচালককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠেছিল।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে ৩৮টি টেস্ট, ৫১টি একদিনের আন্তর্জাতিক এবং ৬টি টি২০ ম্যাচে অংশ নেন শাহাদাত।

২০১৫ সালে গৃহকর্মীকে মারধরের অপরাধে কারাভোগের সাজা হলে তাকে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা দেয় বিসিবি। এরপর থেকে তিনি আর দলে ফেরার সুযোগ পাননি।