• বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ০২, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৪৫ সন্ধ্যা

বিপিএলে খাবার খেয়ে ১৭ সাংবাদিক অসুস্থ

  • প্রকাশিত ০৮:০০ রাত ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯
স

মাছরাঙা টেলিভিশনের সাংবাদিক জাহিদ চৌধুরী জানান, প্রচণ্ড পাতলা পায়খানা আর বমির মধ্য দিয়ে খুব কষ্টের সময় কেটেছে

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) সাংবাদিকদের জন্য সরবরাহ করা খাবার খেয়ে ১৭ সাংবাদিকসহ কমপক্ষে ২৫জন  অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। সাংবাদিকদের জন্য ওই খাবার আনা হয়েছিল রাজধানীর "সেভেন হিল" রেস্টুরেন্ট থেকে। 

শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) সাংবাদিকদের অসুস্থতার অভিযোগের জের ধরে সেভেন হিল রেস্তোরাঁর সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

১১ ডিসেম্বর বিপিএল মাঠে গড়ানোর দিন থেকেই স্টেডিয়ামের মিডিয়া সেন্টারে খাবার সরবরাহ করছে রেস্তোরাঁটি। তখন থেকেই খাবারের মান নিয়ে সবার মধ্যে অসন্তোষ ছিল বলে জানা গেছে। অভিযোগ ছিল, দুপুর কিংবা রাতে খাওয়ার জন্য আনা খাবারগুলো অনেক আগেই রান্না করে রাখা হতো।  

বিসিবি’র তত্ত্বাবধায়নে পরিচালিত একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে শনিবার মাছরাঙা টেলিভিশনের সিনিয়র সাংবাদিক জাহিদ চৌধুরী লেখেন, "গত রাত থেকেই আমি ফুড পয়জনিংয়ে ভুগছি। প্রচণ্ড পাতলা পায়খানা আর বমির মধ্য দিয়ে খুব কষ্টের সময় কেটেছে। একবার তো বাথরুমে অজ্ঞানও হয়ে যাই। আজ তাই মাঠে যাওয়ার মতো অবস্থা নেই আমার।" 

এদিকে প্রথম আলো ক্রীড়া সম্পাদক তারেক মাহমুদ ও রাইজিংবিডির ক্রীড়া প্রতিবেদকও একই অভিযোগ তুলেছেন। ঘটনার পর বিষয়টি বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসানকে জানিয়েছেন গণমাধ্যমকর্মীরা।  

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামের প্রেস বক্স পরিদর্শনের পর এবিষয়ে বিসিবির মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইসলাম জানান, বিষয়তি খুবই বিব্রতকর এবং হতাশাজনক। গণমাধ্যমকর্মীদের জন্য আনা খাবার তিনিও খান। অভিযোগ আসার সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সেভেন হিল রেস্তোরাঁর সঙ্গে চুক্তি বাতিল করা হয়েছে। 

এবিষয়ে সেভেন হিল রেস্তোরাঁর ব্যবস্থাপক শাহাব উদ্দিন আহমেদ উৎপল জানান, বিসিবি’র পক্ষ থেকে তিনি অভিযোগ পেয়েছেন।