• মঙ্গলবার, এপ্রিল ০৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১০ সকাল

অগ্নিসাক্ষী রেখে সাতপাকে বাঁধা পড়লেন পূজা-সৌম্য!

  • প্রকাশিত ১০:২৫ সকাল ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০
সৌম্য-পূজা
খুলনা ক্লাবে সৌম্য-পূজার বিয়ের অনুষ্ঠান। ফাইল ছবি/ঢাকা ট্রিবিউন

বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) খুলনা ক্লাবে রাত ৯টার লগ্নে শুরু হয়ে রাত ১১টায় মন্ত্রপাঠের মাধ্যমে এই বন্ধনে আবদ্ধ হন তারা

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ওপেনার ও সাতক্ষীরার কৃতিসন্তান সৌম্য সরকার খুলনার মেয়ে প্রিয়ন্তি দেবনাথ পূজা অগ্নিকে সাক্ষী রেখে সাতপাকে বাঁধা পড়েছেন। 

বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) খুলনা ক্লাবে রাত ৯টার লগ্নে শুরু হয়ে রাত ১১টায় পুরোহিত রনজিৎ মুখোপাধ্যায়ের মন্ত্রপাঠের মাধ্যমে এই বন্ধনে আবদ্ধ হন তারা। 

সৌম্য সরকারের বিয়ে উপলক্ষ্যে উৎসবের রঙে রাঙানো হয় পুরো খুলনা ক্লাব। আলোকসজ্জায় সজ্জিত করা হয় গোটা এলাকা। সানাইয়ের সুর আর বাদ্য বাজনায় উৎসবের আমেজকে বাড়িয়ে দেয় শতগুণে।

সৌম্যর বাবা সাতক্ষীরার সাবেক শিক্ষা অফিসার কিশোরী মোহন সরকার বলেন, “আমার ছোটছেলে সৌম্য সরকারকে সনাতন ধর্মীয় রীতি-নীতি মেনে রাত ১১টায় বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে।”



প্রিয়ন্তি দেবনাথের বাবা গোপাল দেবনাথ ব্যবসায়ী ও মা মাধবী দেবনাথ গৃহিণী। তাদের বাড়ি খুলনা শহরের টুটপাড়া এলাকায়। পূজা বর্তমানে ও লেভেল পড়ছেন ঢাকার একটি কলেজে। তিনবোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট। 

অন্যদিকে, ক্রিকেটার সৌম্য সরকারও তিনভাইয়ের মধ্যে সবার ছোট। সৌম্যর বাবা কিশোর মোহন সরকার সাতক্ষীরা জেলার সাবেক শিক্ষা অফিসার। মা নমিতা রাণী সরকার গৃহিণী। 

এই তারকা ক্রিকেটারের বিয়েকে ঘিরে মিডিয়াকর্মীদের সরব উপস্থিতি ছিল খুলনা ক্লাবে। ক্রিকেটারকে সামনে পেয়ে আগত অনেকের মধ্যে সেলফি তোলার ধুম পড়ে যায়।