• মঙ্গলবার, মে ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৮ রাত

ভারতে ‘ব্যান’ হতে পারে আইফোন

  • প্রকাশিত ০৯:২৭ রাত জুলাই ২৪, ২০১৮
download-1532445950426.jpg
ভারতে ব্যান হয়ে যেতে পারে আইফোন। ছবি: রয়টার্স

ভারতের টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রকের নির্দেশ না মানায়, দেশটিতে ব্যান হয়ে যেতে পারে আইফোন।

ছয় মাস পর ভারতে ব্যান হয়ে যেতে পারে আইফোন। কারণ ভারতীয় সরকারের অ্যান্টি-স্প্যাম অ্যাপ নিজেদের অ্যাপস্টোরে যোগ করতে রাজি হয়নি আইফোনের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপল। এখন ভারতে টিকে থাকতে হলে অ্যাপস্টোরে ঠাঁই দিতে হবে সরকারের অ্যান্টি-স্প্যাম অ্যাপটিকে, এমনটাই জানিয়েছে প্রযুক্তিনির্ভর সাইট টেক টাইমস।

টেক টাইমস এর বরাতে জানা গেছে, আইফোন বিক্রির দিক থেকেও ভারতে পিছিয়ে রয়েছে অ্যাপল। মার্কিন এই প্রতিষ্ঠানটি কিছুদিন আগেই জানিয়েছে, চলতি বছরের প্রথমার্ধে ভারতে দশ লাখ আইফোনও বিক্রি করতে পারেনি প্রতিষ্ঠানটি।  

ভারতের টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রকের নির্দেশ না মানায় দেশটিতে ব্যান হয়ে যেতে পারে আইফোন। ভারত সরকার স্প্যাম কল এবং টেক্সট ঠেকাতে ‘ডু নট ডিস্টার্ব’ নামের একটি অ্যাপ লঞ্চ করেছে। অ্যাপটির মাধ্যমে দেশটির নাগরিকরা স্প্যাম কল বা টেক্সট সম্পর্কে কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে পারেন এবং গুগল প্লে স্টোরেও অ্যাপটি রয়েছে। দেশটির টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সব ভারতীয় নাগরিকের কাছে সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে নতুন নিয়ম তৈরি করেছে।

সরকারের নতুন নিয়ম অনুসারে, বাধ্যতামূলকভাবে দেশটির সব মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের ফোনে অ্যাপটি থাকতে হবে। কিন্তু, প্রাইভেসি ইস্যুতে ‘ডু নট ডিস্টার্ব’ অ্যাপটিকে অ্যাপস্টোরে যোগ করতে রাজি হচ্ছে না অ্যাপল। কারণ, কর্তৃপক্ষকে অবহিত করার জন্য মোবাইল ব্যবহারকারীর ফোনের সব মেসেজ এবং কল-এ প্রবেশাধিকার নেয় ভারতীয় সরকারের অ্যাপটি।

এদিকে সব মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানকে ছয় মাস সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। সময় শেষে যেসব স্মার্টফোনে অ্যাপটি ইনস্টল থাকবে না, সেগুলোকে নেটওয়ার্কের আওতার বাইরে রাখা হবে।