• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:২৮ সকাল

নতুন ব্লু-হোয়েল ‘মমো’

  • প্রকাশিত ০৫:২৭ ভোর আগস্ট ১, ২০১৮
Momo
মেসেজে মমো দেখতে অনেকটা এরকম। ছবি: সংগৃহীত

“অনেক ব্যবহারকারী জানিয়েছেন যে মমোতে বার্তা পাঠানোর পর সে সহিংস ছবি পাচ্ছেন। অনেকে আবার হুমকিমূলক বার্তাও পেয়েছেন।”

ব্লু-হোয়েলের মতো ক্ষতিকর আরেকটি গেম ছড়িয়ে পড়ছে অনলাইনে। ‘মমো’ নামের ওই গেমটি ইতোমধ্যে নিষিদ্ধ হয়েছে ল্যাটিন আমেরিকায় এমনটাই জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি বাংলা। খোদ বিশেষজ্ঞরাই গেমটিকে ব্লু-হোয়েল গেমের সঙ্গে তুলনা করে জানিয়েছে, এই খেলাটি মারাত্মক পরিণতির দিকে নিয়ে যেতে পারে।

গেমটি মূলত ছড়াচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ মেসেঞ্জারের মাধ্যমে। এর মধ্যেই গেমটি পৌঁছে গেছে এশিয়া, আফ্রিকা আর ইউরোপে। মমো গেমটি মূলত হুট করে স্ক্রিনে ভেসে উঠে খেলার জন্য প্রলুব্ধ করবে। খেলতে নামলেই ফাঁদে পড়ে যাবেন গেমার। ইতোমধ্যে ল্যাটিন আমেরিকায় কর্তৃপক্ষ জনসাধারনকে সতর্ক করে বলছে, গেমটি মেসেজের মাধ্যমে অন্যকে না দেওয়ার জন্য। কারণ এই অনলাইন গেমটি গেমারদের অনেক দূর পর্যন্ত নিয়ে যেতে পারে।

মেক্সিকোর অনলাইন অপরাধ নিয়ে কাজ করা পুলিশ ইউনিট বলেছে, “এটা শুরু হয়েছে ফেসবুকে। একদল লোক একে অন্যকে প্রলুব্ধ করে একটি অপরিচিত নাম্বারে কল দেয়ার জন্য। যদিও শুরুতে সেখানে একটি সতর্কতা দেওয়া ছিলো।”

মেক্সিকোর পুলিশ বলছে, “অনেক ব্যবহারকারী জানিয়েছেন যে মমোতে বার্তা পাঠানোর পর সে সহিংস ছবি পাচ্ছেন। অনেকে আবার হুমকিমূলক বার্তাও পেয়েছেন, ব্যক্তিগত তথ্যও ফাঁস হয়ে যাচ্ছে।” স্পেনের পুলিশও এ ধরনের গেম উপেক্ষা করার পরামর্শ দিয়েছে নাগরিকদের।

আপাতত হ্যাশট্যাগ ইগনোর ননসেন্স দিয়ে চলছে প্রচারণা, এই প্রচারণায় বলা হচ্ছে "ডোন্ট অ্যাড মমো টু ইওর কন্টাক্টস। কিন্তু এখনো বিভ্রান্তি রয়েই গেছে যে আসলে মমো কী? কোথা থেকে এর সূচনা হলো?