• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:০৭ রাত

চীনে ‘বিবিসি’ ব্লকড!

  • প্রকাশিত ০৭:৩৪ রাত আগস্ট ৯, ২০১৮
BBC
চীনে ব্লকড সাইটের খাতায় নাম লিখিয়েছে বিবিসি। ছবি: বিবিসি

“সাময়িক এই অসুবিধার জন্য দুঃখিত আমরা।”

বর্তমানে চীনের নাগরিকরা ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র কোনও প্রতিবেদন পড়তে পারছেন না। কারণ ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমটি সম্প্রতি নিরাপত্তার স্বার্থে নিজস্ব ওয়েবসাইট ফরম্যাটে যে পরিবর্তনটি এনেছে, সে ফরম্যাটের সাইটগুলো চীনে ব্লক। স্বয়ং বিবিসি নিজ প্রতিবেদনে নিশ্চিত করেছে বিষয়টি।

বিবিসির তরফ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, চীনের নাগরিকেরা চাইলে ভিপিএন বা সাইফোন অ্যাপ ব্যবহার করে ব্লক এড়াতে ও বিবিসি’র সংবাদ পড়তে পারবেন।

আদতে চীনে বিবিসি ব্লক হওয়ার মূল কারণটি হচ্ছে, সম্প্রতি নিরাপত্তাজনিত কারণে নিজেদের সব সাইটের ওয়েব অ্যাড্রেস ‘এইচটিটিপি’ থেকে ‘এইচটিটিপিএস’ এ ফরম্যাটে নিয়ে এসেছে সংবাদমাধ্যমটি। আর চীনে ‘এইচটিটিপিএস’ ফরম্যাটের সব ওয়েবসাইট ব্লক করে রাখা। তাই বিবিসিও নাম লিখিয়েছে ব্লকড সাইটের খাতায়। এখন প্রশ্ন থাকতেই পারে কী পার্থক্য ‘এইচটিটিপি’ ও ‘এইচটিটিপিএস’ ফরম্যাটের মধ্যে।     

একদম সহজভাবে বলতে গেলে, একজন ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ঠিক কোন লেখাটি পড়ছেন বা কোন ভিডিও দেখছেন তা ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান জানতে পারে। কিন্তু, ‘এইচটিটিপিএস’ ফরম্যাটের ওয়েবসাইট থেকে এই জানার বিষয়টি ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের জন্য কষ্টকর হয়ে উঠে। 

চীন বরাবরই নাগরিকদের ইন্টারনেট ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করে থাকে। এটি নতুন কোনও ঘটনা নয়। ফলে দেশটির অনেক নাগরিক বেশ আগে থেকেই ভিপিএন ব্যবহার করেন। এদিকে, সপ্তাহখানেক পার হয়ে গেলেও স্বাভাবিকভাবে বিবিসি’র অনলাইন কনটেন্টে প্রবেশাধিকার পাচ্ছেন না চীনের নাগরিক। 

এ প্রসঙ্গে বিবিসির এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, “সাময়িক এই অসুবিধার জন্য দুঃখিত আমরা। দেশটির আভ্যন্তরীন ইন্টারনেট সেবাদাতার মাধ্যমে যাতে বিশেষ কিছু বিবিসি কনটেন্ট চীনের নাগরিকরা পড়তে পারেন, সে চেষ্টা করছি আমরা।”