• শুক্রবার, নভেম্বর ১৬, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৩২ বিকেল

ফেইসবুক ওয়াচ কী এবং যা জানা প্রয়োজন

  • প্রকাশিত ০৬:৫৩ সন্ধ্যা আগস্ট ২৯, ২০১৮
Facebook Watch
ওয়াচ ভিডিও ফিচারটি বিশ্বব্যাপি লঞ্চ করছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক। ছবি: সংগৃহীত

নতুন এই ফিচারে ভিডিও দেখার পাশাপাশি কনটেন্ট তৈরি করে আয়ের সুযোগ রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে উন্মুক্ত করার এক বছর পর ওয়াচ ভিডিও ফিচার বিশ্বব্যাপি লঞ্চ করছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক। নতুন এই ফিচারের মাধ্যমে এখন ইউটিউবের সঙ্গে পাল্লা দেবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্লাটফর্মটি। সম্প্রতি বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

ফেইসবুক ওয়াচ ভিডিও মূলত ‘ভিডিও অন ডিমান্ড’ সেবা। ঠিক ইউটিউবে যেভাবে কনটেন্ট নির্মাতারা ভিডিও তৈরি করে আয় করেন, ঠিক একইভাবে এখন থেকে ফেইসবুকের অংশীদার হয়ে ভিডিও কনটেন্টের মাধ্যমে আয়ের সুযোগ থাকছে কনটেন্ট নির্মাতাদের জন্য। ফেইসবুক মোট বিজ্ঞাপন আয় থেকে ৪৫ শতাংশ রাখবে, অবশিষ্ট ৫৫ শতাংশ পাবেন কনটেন্ট নির্মাতা।

টেকক্রাঞ্চের বরাতে জানা গেছে, ফেইসবুক ওয়াচ সেবাটিতে ‘ওয়াচ ট্যাব’ নামের একটি বাটন থাকবে। সেখান থেকেই দেখা যাবে ভিডিও। এ ছাড়াও ‘মোস্ট টকড অ্যাবাউট’, ‘হোয়াটস মেকিং পিপল লাফ’ এবং ‘শো-স ইও্র ফ্রেন্ডস আর ওয়াচিং’ অপশনগুলোর মাধ্যমে সহজেই পছন্দের ভিডিও খুঁজে পাবেন ফেইসবুক ব্যবহারকারী।

এতোদিন সীমিত গণ্ডিতে ফিচারটি পরীক্ষাধীন রাখলেও, এবার বিশ্বব্যাপি সবার জন্য ফিচারটি লঞ্চ করেছে ফেইসবুক। তবে ফেইসবুকে শুধু কনটেন্ট না দেখে, ফেইসবুক ভেরিফাইড কনটেন্ট নির্মাতা হতে চাইলে বেশ কিছু ধাপ পার করতে হবে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি। ধাপগুলো হচ্ছে- 

১. ভিডিও’র সময়সীমা তিন মিনিটের বেশি হতে হবে।

২. ভিডিও পোস্টের ২ মাস পর ভিডিও ওয়াচের পরিমাণ ন্যূনতম ৩০ হাজার হতে হবে এবং এই ৩০ হাজার ব্যক্তি ভিডিও অন্তত ১ মিনিট দেখেছে এমন পরিস্থিতি থাকতে হবে

৩. ফলোয়ার থাকতে হবে মোট ১০ হাজার।

৪ এমন দেশের নাগরিক হতে হবে, যেখানে বিজ্ঞাপন বিরতির ব্যাপারে কোনও বাঁধা নিষেধ নেই।

সবমিলিয়ে বলা চলে, ব্যবহারকারীদের জন্য ফেইসবুক আকর্ষণীয় একটি ফিচার নিয়ে আসছে। ভেরিফাইড পার্টনার হওয়ার পাশাপাশি কনটেন্ট দেখার সুযোগ তো থাকছেই।