• বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:২৩ রাত

অক্টোবরে ইউটিউব অফিস খুলছে বাংলাদেশে

  • প্রকাশিত ০৩:৫৯ বিকেল সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮
ইউটিউব
ইউটিউবের লোগো

প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষ কর্মকর্তাদের একটি প্রতিনিধি দলটি আগামী সপ্তাহেই আসতে পারেন ঢাকায়।

এবছর অক্টোবর মাসেই বাংলাদেশে আঞ্চলিক অফিস চালু করতে পারে ইউটিউব। ইতোমধ্যেই ইউটিউবের একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশে আসার ব্যাপারও জানা গেছে। প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষ কর্মকর্তাদের এই প্রতিনিধি দলটি আগামী সপ্তাহেই আসতে পারেন ঢাকায়। 

সফরকালে তারা বাংলাদেশ সরকারের একাধিক মন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সাথে আলোচনায় বসবেন।

প্রাপ্ত তথ্য থেকে জানা যায়, সব ঠিকঠাক থাকলে বাংলাদেশ বিশ্বের ৬১তম দেশ হিসেবে পেতে যাচ্ছে ইউটিউবের আঞ্চলিক অফিস। ব্যবহারকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি, ডিজিটাল বিপণনের বড় ক্ষেত্র তৈরি, বাজেট বৃদ্ধি, কনটেন্ট বৃদ্ধি, চ্যানেলের সংখ্যা বৃদ্ধি ইত্যাদিতে চোখ পড়েছে পোর্টালটির কর্তাদের। সূত্রগুলো আরও জানায়, দক্ষিণ এশিয়ায় ভারতের পরেই বাংলাদেশ অবস্থান করছে বলে মনে করছেন ইউটিউবের কর্মকর্তারা। একটি সূত্র মনে করে, হালে বিভিন্ন উৎসবকে কেন্দ্র করে ইউটিউব চ্যানেলে নাটক প্রচার, কিছু কিছু গান ‘কোটি ভিউ’ পাওয়ায় বাংলাদেশের বাজারটিকে ‘অমিত সম্ভাবনাময়’ বলে মনে করছে ইউটিউব।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমরা আশা করছি, মাস দুয়েকের মধ্যে বাংলাদেশে ইউটিউবের অফিস চালু হবে। ইউটিউব মনে করছে, বাংলাদেশ তার জন্য নতুন বিজনেস হাব হবে। ইউটিউব এলে বিষয়টি (রেসপন্স পাওয়া) আমাদের জন্য সহজ হয়ে যায়।’

তিনি জানান, একটি স্যাটেলাইট চ্যানেলের কর্ণধার তাকে (মন্ত্রীকে) জানিয়েছেন, তারা সম্প্রতি ইউটিউব থেকে একটি ‘গোল্ডেন বাটন’ পেয়েছেন। এমনকি, সিএমএস–এর (কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম) দায়িত্বও পেয়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমাকে একটি মাধ্যম থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে যে, বাই অক্টোবর আপনি দেশে ইউটিউবের অফিস পাচ্ছেন। ওই মাধ্যম আমাকে আরও জানিয়েছে, এটা একটা (ইউটিউব) গোল্ড মাইন (স্বর্ণ খনি), যদি ঠিকমতো পরিচর্যা করা যায়। ইউটিউবে বাংলাদেশের কনটেন্ট কম। টিভি চ্যানেলগুলো নাটকসহ অন্যান্য কনটেন্ট দিয়ে চলছে। এর বাইরে কনটেন্টের প্রচুর চাহিদা। আমাদের ওই জায়গাটা ধরতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘চ্যানেলগুলো শুরুতে যে অবস্থায় ছিল, সেখান থেকে তাদের ব্যবসা ইউটিউবে অন্তত ১০০ গুণ বেড়েছে।’