• সোমবার, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:০৫ সন্ধ্যা

সহজেই যাচাই করা যাবে জাতীয় পরিচয়পত্র

  • প্রকাশিত ০৮:২০ রাত জুলাই ১৬, ২০১৯
স্মার্টকার্ড এনআইডি
স্মার্ট এনআইডি কার্ড। ফাইল ছবি/ঢাকা ট্রিবিউন

আগের মতো এনআইডি যাচাইয়ের জন্য এখন থেকে আর অপেক্ষা করতে হবে না

সহজে এবং দ্রুত জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাইয়ের জন্য শিগগিরই চালু হতে যাচ্ছে একটি সরকারি গেটওয়ে। সব ধরনের সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এটি ব্যবহার করে সহজেই পরিচয় নিশ্চিত হতে পারবে। আগের মতো ৩ থেকে ৫ দিন অপেক্ষা করতে হবে না।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানিয়েছে তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বুধবার বেলা তিনটায় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে porichoy.gov.bd-গেটওয়েটির উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

প্রসঙ্গত, ‘পরিচয়’ হচ্ছে গেটওয়ে সার্ভারটি নির্বাচন কমিশনের জাতীয় ডেটাবেসের সঙ্গে সংযুক্ত। এটি এমন একটি অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং, যা সরকারি, বেসরকারি বা ব্যক্তিগত যেকোনো সংস্থার গ্রাহককে মুহূর্তেই জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) যাচাই করে দিতে পারবে। আগের মতো এনআইডি যাচাইয়ের জন্য এখন থেকে আর অপেক্ষা করতে হবে না।

বর্তমান প্রক্রিয়ায়, নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে লগ ইন করে সংস্থাগুলো জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য ম্যানুয়ালি যাচাই করে থাকে। আবার অনেক সংস্থা এনআইডি যাচাইও করে না, কারণ নির্বাচন কমিশনের এনআইডি ডেটাবেসে তাদের ঢোকার সুযোগ নেই।

কিন্তু ‘পরিচয় গেটওয়ে’ ব্যবহার করলে জাতীয় আইডি যাচাই করার জন্য কোনো মানুষের প্রয়োজন নেই। যেকোনো প্রতিষ্ঠান সফটওয়্যারের মাধ্যমে ‘পরিচয় গেটওয়ে’ সার্ভারের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করলে জাতীয় আইডি শনাক্তের ফলাফল সঙ্গে সঙ্গে স্বয়ংক্রিয়ভাবে পেয়ে যাবে। এখন ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলা, ডিজিটাল ওয়ালেট অ্যাকাউন্ট খোলার মতো যেসব কাজে জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধনের প্রয়োজন হয়, সেসব কাজ সহজসাধ্য হবে। এতে করে সময়ও বাঁচবে। নিজের নাম নিবন্ধন করে যাচাইয়ের জন্য ভোগান্তিও পোহাতে হবে না। এটি সঙ্গে সঙ্গেই জাল আইডি শনাক্ত করে জালিয়াতি প্রতিরোধ করবে। ‘পরিচয় গেটওয়ে’ গোপনীয়তা ও নিরাপত্তা বজায় রাখবে এবং জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাইয়ের খরচ কমিয়ে কাজকে দ্রুত করবে।