• সোমবার, এপ্রিল ০৬, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:০৫ সন্ধ্যা

ইউটিবের নতুন নিয়মে ভিডিও নির্মাতাদের আর্থিক ক্ষতির শঙ্কা

  • প্রকাশিত ০৭:৪৭ রাত ডিসেম্বর ১৯, ২০১৯
ইউটিউব
প্রতীকী ছবি পেক্সেলস

ফলে নির্মাতারা আর আগের মতো ইউটিউব থেকে অর্থ পাবেন না বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি

আগামী জানুয়ারিতে প্রাতিষ্ঠানিক নীতিমালায় কিছু পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে অনলাইনে ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম ইউটিউব। বিষয়টি ভিডিও নির্মাতাদের জন্য যথেষ্ট চিন্তার কারণ। কারণ নতুন নীতিমালা তাদের লাভের অর্থে প্রভাব পড়তে পারে।

চিল্ড্রেনস অনলাইন প্রাইভেসি প্রটেকশন অ্যাক্ট (কোপ্পা) এবং যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিসি) ইউটিউবের সম্মতিতে এই নীতি পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কোপ্পার মতে, ইউটিউবে নিজস্ব কোনো বিজ্ঞাপন আর প্রচার করা যাবে না যেগুলো বাচ্চাদের জন্য নির্মাণ করা হয়। কারণ কোপ্পা বাচ্চাদের জন্য কোনো নিজস্ব বিজ্ঞাপন প্রচারের অনুমতি দেয় না।

ফলে নির্মাতারা আর আগের মতো ইউটিউব থেকে অর্থ পাবেন না বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

“এই নীতিমালা কার্যকর হলে কিছু নির্মাতার আয় আগের চেয়ে কমে যাবে। তবে আমরা বাচ্চাদের অনুষ্ঠানে অন্যান্য বিজ্ঞাপন প্রচার করব।”

ভিডিও নির্মাতারা এখন যে বিষয় নিয়ে বেশি ভাবছেন তা হল ইউটিউব কিভাবে নির্ধারণ করবে কোন ভিডিও শিশুদের জন্য উপযোগী আর কোনটি নয়। কারণ একটি চ্যানেলে যদিও লেখা থাকে ভিডিওটি কাদের জন্য, তবু ইউটিউবও তাদের মেশিন লার্নিং কোডের সহায়তায় বিষয়টি যাচাই করবে। ফলে অনেক নির্মাতার আশঙ্কা, প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য বানানো তাদের ভিডিও “শিশুদের জন্য” হিসেবে চিহ্নিত হলে তাদের রোজগার কমে যাবে।

ইউটিউবের নীতি অনুযায়ী কোনো ভিডিও শিশুদের হিসেবে বিবেচিত হয় যদি সেখানে-

- ছোট শিশু বা শিশুর চরিত্র থাকে

- জনপ্রিয় শিশু অনুষ্ঠান বা চরিত্র

- গল্প বা নাটক যেখানে বাচ্চাদের খেলনা ব্যাবহার করা হয়

- জনপ্রিয় বাচ্চাদের গান, গল্প বা কবিতা

তবে অনেক চ্যানেলের কন্টেন্ট শিশুদের উদ্দেশ্যে বানানো হলেও সবার জন্য উপভোগ্য দেখতে পারে। যেমন- মাইনক্রাফট বা ফোরটনাইটের মতো চ্যানেল সব বয়সের মানুষই কমবেশি দেখেন।

বিষয়টি নিয়ে ইতোমধ্যে সরব হয়েছেন অনেক ভিডিও নির্মাতা। এমনকি জায়ান্ট চ্যানেল পিউডিপাই এ বিষয়ে ভিডিও-ও বানিয়েছে। সবচেয়ে বড় বিষয় হলো একবার ইউটিউব কোনো ভিডিওকে শিশুদের জন্য শনাক্ত করে ফেললে আর বিরুদ্ধে আপিলের কোনো সুযোগ নেই।