Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ফ্যাক্ট চেক: রুশো কাজীর ‘থ্রেডস’ অ্যাপের সঙ্গে মেটার সংশ্লিষ্টতা নেই

রুশো কাজীর থ্রেডস অ্যাপ্লিকেশনটি স্ল্যাক সফটওয়্যারের বিকল্প হিসেবে কাজ করে

আপডেট : ১০ জুলাই ২০২৩, ০১:২৩ পিএম

টুইটারের বিকল্প হিসেবে “থ্রেড” অ্যাপ বাজারে এনেছে ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামের মূল প্রতিষ্ঠান মেটা। যাত্রা শুরুর পর থেকেই এটিতে হুমড়ি খেয়ে পড়েছেন লাখ লাখ ব্যবহারকারী।

নতুন এই প্ল্যাটফর্মের ব্যাপক জনপ্রিয়তার মধ্যেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ বিভিন্ন অনলাইন সংবাদমাধ্যমে খবর ছড়িয়ে পড়ে, থ্রেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ও সহপ্রতিষ্ঠাতার দায়িত্ব পালন করছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তরুণ রুশো কাজী। তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রুশো কাজী  “থ্রেডস” নামের একটি অ্যাপের সঙ্গে যুক্ত থাকলেও সেটির সঙ্গে মেটার “থেডস”র কোনো সম্পর্ক নেই।

রুশো কাজীর “থ্রেডস” একটি সম্পূর্ণ স্বতন্ত্র অ্যাপ্লিকেশন। এটি স্ল্যাক সফটওয়্যারের বিকল্প হিসেবে কাজ করে। এটি গুগল প্লে এবং অ্যাপল স্টোরে পাওয়া যায়।

বিষয়টি নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টির পর রুশো কাজীর থ্রেডস অ্যাপের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে মেটার সঙ্গে তাদের সংশ্লিষ্টতা না থাকার কথা বলা হয়েছে। টুইটার হ্যান্ডেলে বলা হয়, “মেটার সঙ্গে আমাদের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। তবে পাশে থাকার জন্য আপনাদের স্বাগতম!”

মেটার নতুন এই প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে তাদের অ্যাপের নামের মিল থাকায় সৃষ্ট বিড়ম্বনা কথা স্বীকার করে একটি মিমও শেয়ার করেছে রুশোর থ্রেডস।

কে এই রুশো কাজী?

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুশো কাজী নিজের সৃষ্ট থ্রেডসের মাধ্যমে বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য স্টেটসম্যানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া থেকে স্নাতক সম্পন্নের পর তিনি ফেসবুকে ইন্টার্নশিপ শুরু করেন।

মাত্র ২১ বছর বয়সেই তিনি প্রতিষ্ঠানটিতে স্থায়ী কর্মী হিসেবে নিয়োগ পান।

ফেসবুকের হয়ে রুশো কাজী মোট ছয় বছর চাকরি করেছেন। এ সময়ে তিনি ফেসবুকের বিভিন্ন দল এবং প্ল্যাটফর্মে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন।

ফেসবুকের ওয়ার্কপ্লেস অ্যাপ নিয়েও রুশো কাজীর কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। এই অ্যাপটিতে নিজস্ব কিছু ফিচার যোগ করতে চেয়েছিলেন তিনি। এখন সেই ফেসবুক ওয়ার্কপ্লেসের বড় প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে দাঁড়িয়েছে তার তৈরি থ্রেডস। অ্যাপটি তৈরির প্রথম ধারণা তার দুই বোনের কাছ থেকে এসেছে বলে জানান রুশো।

থ্রেডস অ্যাপটি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজের জন্য ব্যবহার করা যায়। প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা এই অ্যাপের মাধ্যমে অনলাইনে আলাপচারিতা চালিয়ে যেতে পারেন এবং সে অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। এটি কাজে লাগিয়ে বার্তার পাশাপাশি লিংক, ছবি, জিআইএফ এবং ভিডিও-ও পাঠানো যায়।

About

Popular Links