Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নিজের সিনেমার ব্যর্থতায় ক্ষতিপূরণ দিয়েছেন যেসব তারকা

বলিউডের তিন খান থেকে শুরু করে অনেক তারকাই নিজ সিনেমার ব্যর্থতার দায়ভার নিয়ে ক্ষতিপূরণ দিয়েছেন

আপডেট : ৩০ এপ্রিল ২০২৩, ০২:৩৯ পিএম

ঈদ উপলক্ষে গত ২১ এপ্রিল মুক্তি পেয়েছে  সালমান খান অভিনীত “কিসি কা ভাই কিসি কা জান” সিনেমাটি। এর মাধ্যমে চার বছর পর আবারও ঈদে মুক্তি পেয়েছে বলিউডের ভাইজানের সিনেমা। মুক্তির আগে সালমান ঘোষণা দিয়েছিলেন, সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে না চললে এটির পুরো খরচ তিনি নিজের পকেট থেকেই দেবেন।

শুধু সালমানই না, শাহরুখ খান থেকে শুরু করে আমির খান এবং অক্ষয় কুমারের মতো তারকারাও সিনেমার ব্যর্থতার দায়ভার নিয়ে ক্ষতিপূরণ দিয়েছেন। দেখা যাক সিনেমার ব্যর্থতার কারণে কে কত ক্ষতিপূরণ গুণেছেন-

সালমান খান

মুক্তির পর প্রথম সপ্তাহে প্রেক্ষাগৃহে ভালো চললেই বর্তমানে “কিসি কা ভাই কিসি কা জান” সিনেমাটির আয় পড়তির দিকে। বর্তমান পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী সালমানকে সিনেমাটির খরচ অর্থাৎ ক্ষতিপূরণ বহন করতে হবে। তবে বলিউড সুপারস্টারের জন্য এ অভিজ্ঞতা নতুন না। ২০১৭ সালের ঈদে মুক্তিপ্রাপ্ত “টিউবলাইট” সিনেমার ব্যর্থতার জন্য ৫৫ কোটি রূপি ক্ষতিপূরণ গুণেছিলেন সালমান।

শাহরুখ খান

সিনেমার বক্স অফিস ব্যর্থতার জন্য ক্ষতিপূরণ দেওয়ার তালিকায় আছে শাহরুখের নামও। চার বছর বিরতির পর ফিরে “পাঠান” দিয়ে তাণ্ডব চালালেও গত এক দশকে তার সিংহভাগ ছবিই ব্যর্থতার খাতায় নাম লিখিয়েছিল, যার মধ্যে রয়েছে “দিলওয়ালে” ও “জিরো”। ২০১৫ ও ২০১৮ সালে মুক্তি পাওয়া সিনেমা ব্যর্থ হলে প্রযোজকদের ডিস্ট্রিবিউশন খরচের ৫০% ফেরত দেন বলিউড বাদশাহ। এছাড়া, ২০১৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত “জাব হ্যারি মেট সেজাল” ফ্লপ হলে ডিস্ট্রিবিউশন খরচের ৩০% অর্থ ফিরিয়ে দেন কিং খান।

আমির খান

শাহরুখের মতো আমিরও গত বছর দীর্ঘ বিরতির পর পর্দায় ফিরেছিলেন। কিন্তু কিং খানের মতো “মিস্টার পাররফেকশনিস্ট” এর প্রত্যাবর্তনের অভিজ্ঞতা সুখকর হয়নি। বয়কট ট্রেন্ডের মুখে আমিরের “লাল সিং চাড্ডা” সিনেমাটি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ে। ফলে হলিউড সিনেমা “ফরেস্ট গাম্প”র হিন্দি রিমেকটির ব্যর্থতার দরুন আমির ১০০ কোটি রুপি ক্ষতিপূরণ দেন।

অক্ষয় কুমার

সাধারণত প্রতিটি সিনেমার জন্য অক্ষয় কুমার ১০০ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন। তবে আগামী বছরে মুক্তির অপেক্ষায় থাকা “বড়ে মিয়া ছোটে মিয়া” সিনেমার জন্য নিজের পারিশ্রমিকে ৫০% ছাড় দেন খিলাড়ি কুমার। ধারণা করা হয়, বিগত দুই বছরে নিজের সিনেমার বক্স অফিস ব্যর্থতার কারণেই অক্ষয় নিজের পারিশ্রমিক কমান।

বিজয় দেবরাকোন্ডা

গত বছর “লাইগার” সিনেমা দিয়ে বলিউডে পা রাখেন বিজয় দেবরাকোন্ডা। কিন্তু বক্স অফিসে ব্যর্থতা দিয়েই বলিউড অভিষেক হয় দক্ষিণ ভারতীয় সিনেমার এ অভিনেতার। ১০০ কোটি বাজেটে নির্মিত সিনেমাটি মাত্র ৬০ কোটি রুপি আয় করলে প্রযোজনা সংস্থাটি বড় রকম ক্ষতির মুখে পড়ে। সেই ক্ষতি লাঘবে নিজের পারিশ্রমিক থেকে বিজয় ফিরিয়ে দেন ৬ কোটি রুপি।

About

Popular Links