Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

করোনাভাইরাস: চীনের সাংহাইয়ে ৯ দিনের লকডাউন

এতদিন পর্যন্ত কর্তৃপক্ষ এখানে লকডাউন জারি করার সিদ্ধান্ত নেয়নি। পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে দেখে এবার নেওয়া হলো

আপডেট : ২৮ মার্চ ২০২২, ০৫:০৮ পিএম

চিনে করোনাভাইরাস ছড়াচ্ছে। তাই সাংহাইতে দুই পর্বে ৯ দিনের লকডাউন চালু করেছে দেশটি। দুই বছর আগে করোনাভাইরাস শুরুর পর থেকে উহান পুরো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। আরও কিছু শহরে ও প্রভিন্সে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু সাংহাইয়ের মতো বড় শহর পুরোপুরি বন্ধ রেখে লকডাউন করা হয়নি। কিন্তু এবার হলো। শহর বন্ধ রেখে কর্তৃপক্ষ ব্যাপকভাবে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করবে।

গত এক মাস ধরে সাংহাইতে করোনাভাইরাস সমানে ছড়াচ্ছে। অবশ্য আন্তর্জাতিক মানদণ্ডে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা যে খুব বেশি তা নয়। তা সত্ত্বেও এই গুরুত্বপূর্ণ শিল্পশহর বন্ধ রেখে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হবে।

সাংহাইতে দুই কোটি ৫০ লাখ মানুষের বসবাস। এতদিন পর্যন্ত কর্তৃপক্ষ এখানে লকডাউন জারি করার সিদ্ধান্ত নেয়নি। পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে দেখে এবার নেওয়া হলো। রাস্তায় যানবাহন চলবে না। কারখানা ও অফিস বন্ধ থাকবে। বাড়ি থেকে কাজ করা যেতে পারে।  করোনাভাইরাস মোকাবিলার জন্য এই সিদ্ধান্ত সমর্থন করার জন্য শহরের মানুষের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে।

এর আগে চীনে একটা গোটা এলাকা লকডাউন হয়েছে। কিন্তু মানুষ এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায় যেতে পেরেছেন। সাংহাইয়ের জনসংখ্যার ঘনত্ব সবচেয়ে বেশি। আজ পর্যন্ত সাংহাইয়ের মতো এত বড় শহরে লকডাউন করা হয়নি। তাছাড়া সাংহাই হলো চীনের বাণিজ্যিক রাজধানী। এখানে লকডাউনের প্রভাব অনেক বেশি হতে বাধ্য।

কিন্তু চীন এখন ওমিক্রন ভাইরাসের মোকাবিলায় কোনো ঝুঁকি নিতে চায় না। এতদিন চীনা কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছিলেন, অর্থনীতির স্বার্থেই এই শহর চালু রাখা জরুরি। এখন দুই পর্বে লকডাউন ঘোষণা করা হলো। অর্ধেক শহরে এক পর্বে। বাকি অর্ধেকে অন্য পর্বে।

সাংহাইতে শহরের পূর্বদিকের অংশে সোমবার থেকে ১ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন থাকবে। পশ্চিম অংশে লকডাউন চালু হবে ১ থেকে ৫ এপ্রিল। চীনে অবশ্য অন্য শহরে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা কম থাকলেও লকডাউন জারি করা হয়েছে।

About

Popular Links