Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ভারতে গুগল অফিসের ভেতরটা দেখতে যেমন

সম্প্রতি গুগলের এ অফিসের নানা সুযোগ সুবিধার ভিডিও ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ করেন প্রতিষ্ঠানের এক কর্মী

আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৭:৩৪ পিএম

ভারতের পুনেতে নতুন অফিস চালু করেছে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গুগল। আর এ অফিসে আগতদের সময় কাটানোর জন্য রাখা হয়েছে নানা সুযোগ সুবিধা।

সম্প্রতি গুগলের এ অফিসের নানা সুযোগ সুবিধার ভিডিও ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ করেন প্রতিষ্ঠানের এক কর্মী। সেটি ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, পুনের কোরেগাঁও পার্ক অ্যানেক্সে এ নতুন অফিস চালু করা হয়েছে।

অফিসটিতে বিশ্ব জুড়ে থাকা গুগলের প্রকৌশলীরা ক্লাউড প্রযুক্তি নির্মাণ, রিয়েল টাইম প্রযুক্তি পরামর্শসহ গুগলের উন্নতিতে কাজ করবেন।

যেখানে ১,৩০০ জনেরও বেশি কর্মচারীর একত্রে কাজ করার সুযোগ রয়েছে।

পুনের এ অফিসে সফটওয়্যার প্রকৌশলী হিসেবে কাজ করা আরশ গোয়াল ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও প্রকাশ করেন৷

এতে দেখা যায়, অফিসে ঢুকতেই হাল্কা নাশতার একটি কক্ষ রয়েছে। ভেতরে ঢুকতেই খেলাধুলার জায়গা, বিনোদনের কক্ষসহ সুন্দর ও নান্দনিক সব নির্মাণ। রয়েছে আলাদা ক্যাফেটেরিয়াও।

পোস্টের ক্যাপশনে গুগলের এ কর্মী লিখেন, “গুগলের পুনে অফিসে একজন সফটওয়্যার প্রকৌশলীর দিন শুরু। দেখুন তো, অফিসের কোন অংশটি আপনাকে বেশি মুগ্ধ করে? 

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Arsh Goyal (@arshgoyalyt)

পোস্টটি প্রকাশের পর থেকে সেটি ৪৭০,০০০ এর বেশি ভিউ ও ১৮,০০০ এর বেশি শেয়ার হয়েছে। 

অনেকেই অফিসটি ভীষণ পছন্দ করেছেন। কেউ কেউ সেখানে কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

একজন যেমন লিখেছেন, “যাই, গুগলের অফিসে কাজ করার জন্য তাড়াতাড়ি নিজেকে প্রস্তুত করি।”

পুনের এ অফিস চালুর মধ্য দিয়ে ভারতে এখন গুগলের মোট অফিস পাঁচটি। আর ভারতের সদর দপ্তর রয়েছে হায়দরাবাদে।

গুগলের ক্লাউড প্রকৌশলী অনিল বানসালি বলেন, “আমাদের গ্রাহক বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমাদের সেবা আরও বৃদ্ধি করতে ক্লাউড উন্নয়নের কাজ চলছে। এরই অংশ হিসেবে পুনেতে একটি নতুন কার্যালয় চালু করা হয়েছে।”

তিনি বলেন, “দীর্ঘদিন ধরেই ভারত প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনের এক কেন্দ্রস্থল। এখানে গুগলের বহু কার্যক্রম আছে। আমাদের দক্ষ কর্মীরা এখানে কাজ করছেন। গুগলের ক্লাউড পরিকাঠামোর উন্নয়নে আমরা বিনিয়োগ করছি। এর মাধ্যমে আমাদের গ্রাহকদের চাহিদা পূরণে আমরা আরও সক্ষম হয়ে উঠবো। এজন্য আমরা বিস্তর কৌশল নিয়েছি। সেই কৌশল বাস্তবায়নে কর্মীরা ভূমিকা রাখছেন।”

About

Popular Links