Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নুর: আন্দোলনের কারণে সরকার ইভিএম থেকে সরে এসেছে

আপডেট : ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১০:২৮ পিএম

বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর আন্দোলনের কারণে সরকার ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) থেকে সরে এসেছে বলে দাবি করেছেন গণঅধিকার পরিষদের সদস্যসচিব নুরুল হক নুর। তিনি বলেন, “বিরোধী দলগুলোকে সঙ্গে নিয়ে গণআন্দোলন গড়ে তুলতে পারলে ১৯৯১ সালের মত আওয়ামী লীগ সরকার তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ব্যবস্থা মেনে নেবে।”

শনিবার (২৮ জানুয়ারি) বিকেলে রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে দলের সদস্য ফরম উন্মোচন এবং শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

নুরুল হক নুর বলেন, “স্বাধীনতার ৫১ বছরের মধ্যে ৩১ বছর ক্ষমতায় ছিল আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি। যে স্বপ্ন নিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধারা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন, সেই স্বপ্ন তারা বাস্তবায়ন করতে পারেননি। আওয়ামী লীগ সরকার টানা ১৪ বছর ক্ষমতায় থেকে উন্নয়নের কথা বলে দেশকে খাদের কিনারায় নিয়ে গেছে।”

তিনি আরও বলেন, “জিনিসপত্রের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে, বাজার নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না সরকার। রোজায় দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়লে জনজীবনে চরম দুর্ভোগ তৈরি হবে।”

আওয়ামী লীগ সরকার ২০১৪ ও ২০১৮ সালে বিনাভোটে নির্বাচন করে বাংলাদেশকে সারা বিশ্বে একটি কর্তৃত্ববাদী রাষ্ট্র হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আওয়ামী লীগ সরকার ১৪ বছর ক্ষমতায় থেকেও তিস্তা চুক্তি করতে ব্যর্থ হয়েছে উল্লেখ করে নুরুল হক নুর বলেন, “এ নিয়ে সরকার ব্যর্থ, রাজনীতিবিদরা ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন।”

দেশে ভোটের পরিবেশ সুষ্ঠু হলে গণঅধিকার পরিষদ ৩০০ আসনে প্রার্থী দেবে উল্লেখ করে গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব বলেন, “গণঅধিকার পরিষদের নেতৃত্বে আগামীতে সরকার গঠন হবে। আমরা জনগণের আকাঙ্ক্ষা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই।”

গণঅধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ও রংপুর বিভাগীয় সমন্বয়ক হানিফ খান সজিবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন গণঅধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক কর্নেল মিয়া মসিউর রহমান, ইসাহাক সিদ্দিকী, বিপ্লব কুমার পোদ্দার, মাহফুজার রহমান, গণঅধিকার পরিষদের সহকারী সদস্যসচিব মাসুদ মোন্নাফ, ইব্রাহিম খোকন।

About

Popular Links