Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পরিবহন খরচ আকাশচুম্বী হওয়ায় পাট রপ্তানি কমেছে

মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে কন্টেইনারে মালামাল পরিবহন খরচ প্রায় ১০ গুণ বেড়ে ১০,০০০-১৫,০০০ ডলার হয়েছে

আপডেট : ১৭ জুলাই ২০২২, ১১:৪২ এএম

শিপিং খরচের অতিরিক্ত বৃদ্ধি এবং কাঁচা ফাইবারের উচ্চমূল্যের কারণে ২০২১-২২ অর্থবছরে বাংলাদেশ থেকে পাট ও পাটজাত পণ্যের রপ্তানি কমেছে।

মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে কন্টেইনারে মালামাল পরিবহন খরচ ১,০০০-১,৫০০ ডলার থেকে প্রায় ১০ গুণ বেড়ে ১০,০০০-১৫,০০০ ডলার হয়েছে।

এর মানে হল, যদি পণ্যে ভরা একটি কন্টেইনারের মূল্য ৪০,০০০ ডলার হয়, তাহলে শিপিং চার্জশহ মোট মূল্য দাঁড়ায় ৫০,০০০ ডলার।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) তথ্যে দেখা গেছে, ৩০ জুন শেষ হওয়া অর্থবছরে মিলাররা পাট ও পাটজাত পণ্য বিক্রি করে ১.১৩ বিলিয়ন ডলার আয় করেছে, যা বছরের তুলনায় ২.৯১% কম।

প্রধান রপ্তানিযোগ্য সুতা এবং এ পাটজাত পণ্য থেকে আয় ১২.৬৭% কমে ৬৯৭.৮০ মিলিয়ন হয়েছে।

ইপিবির তথ্যে দেখা গেছে, এ খাত থেকে রপ্তানি আয়ের দুই-তৃতীয়াংশই পাটের সুতা।

এই পণ্যটি কার্পেট তৈরিতে ব্যবহৃত হয় এবং বাংলাদেশে উৎপাদিত সুতার প্রধান ক্রেতা তুরস্ক।

স্থানীয় বাজারে কাঁচা পাটের উচ্চমল্য মূলত মধ্যস্বত্বভোগীদের বাজার কারসাজির মাধ্যমে চালিত হয়, কিন্তু রপ্তানিকারকদের যখন উচ্চমূল্যে কাঁচামাল কিনতে হয় তখন তারা আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে পারে না।

রপ্তানিকারকরা বলেছেন, ২০২১-২২ অর্থবছরে, ১.১৬ বিলিয়ন রপ্তানি প্রাপ্তির ধাক্কার পর গত কয়েক মাসে কাঁচা পাটের উচ্চমূল্য এবং বর্ধিত চাহিদা এ শিল্পের জন্য নতুন ধাক্কা হয়ে এসেছে।

রপ্তানি বাজারের জন্য সুতা, ব্যাগ, বস্তা এবং অন্যান্য পাটজাত পণ্য উৎপাদনকারী মিলারদের মতে, প্রাকৃতিক ফাইবারের দাম এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে প্রতি মণ ৫,০০০ টাকার বেশি রের্কড উচ্চতায় পৌঁছানোয় ক্রেতারা অর্ডার কমিয়েছেন। অন্যদিকে মধ্যস্বত্বভোগীদের মজুত এবং গত মৌসুমে ফসলের উৎপাদন কমে গেছে।

সাধারণত, ফসল তোলার সময় কাঁচা পাট প্রতি মণ ২,৫০০-৩,১০০ টাকায় বিক্রি হয়।

২০২১-২২ অর্থবছরে চালান ১৪% কমে ১১৯.২৩ মিলিয়নে নেমে আসায় পাটের বস্তা এবং ব্যাগ প্রস্তুতকারীরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

রপ্তানির পরিমাণ কমতে থাকায় সরকার খাদ্য-গ্রেডের ব্যাগ, জামাকাপড়, সুতা এবং সুতাগুলির মতো বৈচিত্র্যময় পাটজাত পণ্যের চালানের জন্য ২০% নগদ প্রণোদনা বাড়িয়েছে।

এদিকে, কেন্দ্রীয় ব্যাংক সম্প্রতি এক বিজ্ঞপ্তিতে বলেছে- রপ্তানিকারকদের রপ্তানি মূল্যের কমপক্ষে ৫০% সমতুল্য প্রাকৃতিক ফাইবার ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে।

হেসিয়ান, স্যাকিং এবং কার্পেট ব্যাকিং কাপড়ের জন্য নগদ প্রণোদনা ১২% করা হয়েছে।

গত পাঁচ বছর ধরে বাংলাদেশের কৃষকরা বছরে প্রায় ৮০ মিলিয়ন বেল পাট উৎপাদন করছে।

ইউরোপ, সংযুক্ত আরব আমিরাতে সরাসরি পাট রপ্তানি শিপিংয়ের পরিকল্পনা 

পাট ও পাটজাত পণ্য বিদেশের বাজারে রপ্তানির জন্য চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ইউরোপ ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই) সরাসরি শিপিং করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

কর্মকর্তারা বলেছেন যে সরকার বিশ্ববাজারে যাওয়ার পথে গন্তব্যগুলোতে প্রাকৃতিক ফাইবার বহনের সুবিধার্থে প্রয়োজনীয় সরবরাহ বাড়াতে চাইছে।

গৃহীত ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনার জন্য নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় ২১ জুলাই আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক ডেকেছে।

বৈঠকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, পররাষ্ট্র, বাণিজ্য ও পাট মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, বন্দর চেয়ারম্যান এবং পাট ও পাটজাত পণ্য সমিতির অন্যান্য স্টেকহোল্ডার এবং জাহাজ মালিকদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

কর্মকর্তারা বলেছেন যে বাংলাদেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে সরাসরি শিপিং পরিষেবা শুরু করতে আগ্রহী।

সাম্প্রতিক সফরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইউরোপ ও আমেরিকায় পণ্য পরিবহনের জন্য দ্রুত এ সেবা চালু করতে ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

বাংলাদেশ সাধারণত সিঙ্গাপুর, কলম্বো, পোর্ট ক্লাং এবং মালয়েশিয়ার তানজুং পেলেপাসে ট্রান্সশিপমেন্ট পোর্ট ব্যবহার করে পণ্য রপ্তানি করে।

কিছু ইউরোপীয় জাহাজ-লাইনার ইতোমধ্যেই চট্টগ্রাম বন্দরের সঙ্গে সরাসরি শিপিং চালু করেছে, যা পরিবহনের সময় এবং খরচ দুটোই কমিয়ে দিয়েছে।

এখন ইতালি, ইউরোপীয় শহর রটারডাম এবং লিভারপুল চট্টগ্রামের সঙ্গে সরাসরি সংযুক্ত এবং আরও কয়েকটি শহরকে সংযুক্ত করার কাজ চলছে।

About

Popular Links