Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নতুন কর্মজীবনের প্রথম পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আসিফ

মার্চের শুরুতে পেশাগত জীবনে প্রথমবারের মতো চাকরিতে যোগ দেন বাংলা গানের যুবরাজ খ্যাত এ সঙ্গীতশিল্পী

আপডেট : ৩১ মার্চ ২০২৩, ১১:১৫ পিএম

সঙ্গীতের ভুবনে আসিফ আকবরের পদচারণা দীর্ঘদিনের। গানকেই নিজের ক্যারিয়ারের একমাত্র মাধ্যম হিসেবে মেনে এলেও বাংলা গানের যুবরাজ খ্যাত এ সঙ্গীতশিল্পী মার্চের শুরুতে পেশাগত জীবনে প্রথমবারের মতো চাকরিতে যোগ দেন। ভার্সাটিলো গ্রুপ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের “হ্যালো সুপারস্টারস” (অ্যাপ) বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী হিসেবে যোগ দেন আসিফ।

কর্মজীবনে আসিফের প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট ছিল কিংবদন্তি শিল্পী রুনা লায়লাকে একটি অনুষ্ঠানের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়ে রাজি করানো। সেই কাজে সফলও হয়েছেন তিনি।

শুক্রবার (৩১ মার্চ) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে আনন্দচিত্তে সেই খবরটি সবার সঙ্গে ভাগাভাগি করেন এ সঙ্গীতশিল্পী।

ফেসবুক পোস্টে আসিফ জানান, মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরে ৩০ এপ্রিল “হ্যালো সুপারস্টারস” অ্যাপের উদ্বোধন হবে। সেখানকার চেরাস স্টেডিয়ামে বিশাল আয়োজনে অ্যাপটি উন্মুক্ত করা হবে। আর ওই আয়োজনেই বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে থাকবেন রুনা লায়লা। উদ্বোধনের পর পহেলা মে থেকে বাংলাদেশি পতাকাবাহী এ আন্তর্জাতিক অ্যাপটির বৈশ্বিক যাত্রা শুরু হবে।

চাকরি জীবনে প্রবেশের অভিজ্ঞতা জানিয়ে এ সঙ্গীতশিল্পী বলেন, “বাংলাদেশি কান্ট্রি হেড হিসেবে চাকরিতে যোগদানের পরে বুঝে গেছি আমি উত্তাল সমুদ্রাভিযানে নেমেছি। চ্যালেঞ্জ নিতে ভালোবাসি, ‘হ্যালো সুপারস্টারস'-এ সংযুক্ত থেকে দেশের জন্য কিছু করা যাবে। অ্যাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যত বেশি সম্ভব দেশীয় তারকা চেরাস স্টেডিয়ামে অংশ নিন, এটাই আমরা চাই।” 

রুনা লায়লাকে অনুষ্ঠানের জন্য আমন্ত্রণ জানানোর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আমার প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট ছিল শ্রদ্ধেয় রুনা লায়লা আপাকে বিশেষ অতিথি হিসেবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য রাজি করা। রুনা আপার সঙ্গে গাওয়ার সুযোগ পেয়েছি, কথা বলতে পারছি, উনি আমাকে স্নেহ করেন- এগুলো সব আমার কাছে স্বপ্নের মতো। না মিশলে বুঝতেই পারতাম না রুনা আপার ভেতরে একটা কোমল শিশু বসবাস করে। বাইরের শক্ত আবরণটা আসলে আমাদের শ্রদ্ধায় তৈরি। বাংলাদেশের যোগ্যতম প্রতিনিধি দ্য রুনা লায়লা ‘হ্যালো সুপারস্টারস' অ্যাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এক্সক্লুসিভ গেস্ট হিসেবে থাকার সম্মতি দিয়েছেন।”

আসিফ আকবর জানান, জোজো ইভেন্টস ও ভার্সাটিলো গ্রুপের এ আয়োজনে অংশ নিতে টাকা দিয়ে কোনও টিকিট কিনতে হবে না। কেবল তাদের অ্যাপে রেজিস্ট্রেশন করলেই এটি উপভোগ করা যাবে।

“হ্যালো সুপারস্টারস” অ্যাপটি তারকা ও অনুরাগীদের মধ্যে যোগাযোগের সেতুবন্ধন তৈরিতে কাজ করবে। শুধু বিনোদন জগতেরই না, বিভিন্ন ক্ষেত্রেই যারা জনপ্রিয়তা অর্জন করে তারকা হওয়া সবাইকে এক প্ল্যাটফর্মে পাবেন সাধারণ ভক্তরা। “হ্যালো সুপারস্টারস” অ্যাপের অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে তারকারা নিজেদের খবরাখবর জানাবেন এবং ক্তরা নিজ পছন্দের তারকার নিত্যনতুন খবর পাবেন।

About

Popular Links