Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

জেনে নিন পেওনিয়ার থেকে ফ্রিল্যান্সিংয়ের টাকা বিকাশে আনার পদ্ধতি

বিকাশ দিয়ে ফ্রিল্যান্সারদের আয় দেশে আনা যাবে সহজেই
আপডেট : ১২ এপ্রিল ২০২২, ০৩:২১ পিএম

ক্যারিয়ার হিসেবে ফ্রিল্যান্সিং জনপ্রিয়তা পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চাহিদা বাড়ছে ফ্রিল্যান্সিংয়ের টাকা বাংলাদেশে আনার সহজ মাধ্যমের। সেই দিক থেকে ফ্রিল্যান্সারদের যাবতীয় ঝামেলা থেকে মুক্তি দিতে যুগান্তকারী সুযোগ সৃষ্টি করেছে ব্র্যাক ব্যাংকের পেমেন্ট গেটওয়ে বিকাশ অনলাইন লেনদেনের গুরুত্বপূর্ণ প্ল্যাটফর্ম পেওনিয়ার-এর যেকোনো মুদ্রার অর্থ এখন বিকাশে বাংলাদেশি টাকায় আনা যাবে। গত ১০ ফেব্রুয়ারি থেকে বিকাশ শুরু করে এই পরিষেবাটি। দেশ জুড়ে সর্বাধিক গ্রহণযোগ্য এই মাধ্যমটি থেকে এখন ফ্রিল্যান্সাররাও উপকৃত হবেন। চলুন, জেনে নেওয়া যাক পেওনিয়ার থেকে বিকাশে টাকা আনার পদ্ধতি।

পেওনিয়ার কি

এটি একটি আমেরিকান আর্থিক লেনদেনের পরিষেবা সংস্থা যা অনলাইনে অর্থ স্থানান্তরের সেবা দিয়ে থাকে।

অ্যাকাউন্টধারীরা ই-ওয়ালেট, বিভিন্ন মুদ্রায় ভার্চুয়াল ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর এবং প্রিপেইড মাস্টার ও ডেবিট কার্ড ব্যবহার করে অর্থ লেনদেন করতে পারেন। প্রাপ্ত অর্থ যেকোনো দেশের ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে উত্তোলন করা যায়। এছাড়া পেওনিয়ার ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে অনলাইনে কেনাকাটা করা যায়। এটি বাংলাদেশ সহ ২০০টি দেশে ১৫০ টিরও বেশি স্থানীয় মুদ্রায় ওয়্যার ট্রান্সফার, অনলাইন পেমেন্ট এবং রিফিলযোগ্য ডেবিট কার্ড পরিষেবা প্রদান করছে।

গুগল, অ্যামাজন, এয়ারবিএনবি-এর মতো কোম্পানিগুলো বিশ্বজুড়ে শত শত অর্থ প্রদানে পেওনিয়ার ব্যবহার করে। এটি র্যাকুটেন ও ওয়ালমার্ট-এর মত ইকমার্স মার্কেটপ্লেস এবং ফাইভার ও ইনভাটো-এর মতো ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসগুলোতে ব্যবহৃত হয়।


আরও পড়ুন: বিকাশ দিয়ে ফ্রিল্যান্সারদের আয় দেশে আনা যাবে সহজেই


পেওনিয়ার থেকে ফ্রিল্যান্সিংয়ের টাকা বিকাশ

ধাপে ধাপে পেওনিয়ার থেকে বিকাশ করার পদ্ধতি

১) প্রথমেই যথারীতি ফোন নম্বর ও পাঁচ অঙ্কের পিন সংখ্যা দিয়ে বিকাশ অ্যাপ-এ লগইন করতে হবে।

২) বিকাশের হোম স্ক্রিণ থেকে “আরো” অপশনে যেয়ে সেখান থেকে রেমিটেন্স-এ ক্লিক করতে হবে।

৩) এই ধাপে চলে আসবে পেওনিয়ার-এ যাওয়ার অপশনটি। পেওনিয়ারে ক্লিক করলে নতুন স্ক্রিণে পেওনিয়ারের তথ্য চাওয়া হবে।

৪) এ অংশে যদি পেওনিয়ার একাউন্ট খোলা না থাকে, তবে এখান থেকেই পেওনিয়ারের নতুন অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে। আর অ্যাকাউন্ট খোলা থাকলে নিচে আপনার পেওনিয়ার অ্যাকাউন্ট লিঙ্ক করুন সিলেক্ট করতে হবে।

৫) অতঃপর নতুন স্ক্রিণে পেওনিয়ার অ্যাকাউন্টের ইউজার নেম ও পাসওয়ার্ড দিয়ে পেওনিয়ারে প্রবেশ করলেই পেওনিয়ারের সাথে বিকাশ সংযুক্ত হয়ে যাবে।

৬) সফলভাবে সংযুক্ত হওয়ার বার্তা দিয়ে নিচেই গ্রাহকের পেওনিয়ারের আইডি ও ইমেইল নাম্বার দেয়া থাকবে। তার পরেই টাকা আনতে নির্বাচন করুন টাইটেলের নিচে বিভিন্ন মুদ্রায় পেওনিয়ারে জমাকৃত অর্থগুলো উল্লেখ থাকবে। সেখান থেকে নিজের প্রয়োজন অনুযায়ী যে কোনটি সিলেক্ট করা যাবে।

৭) এরপর চূড়ান্তভাবে কত টাকা আনা হবে তার পরিমাণ উল্লেখ করে এগিয়ে যান-এ ক্লিক করলেই বিকাশে টাকা চলে আসবে।

এক্ষেত্রে মনে রাখা আবশ্যক যে, লেনদেনের জন্য পেওনিয়ারে অবশ্যই নূন্যতম ১০০০ টাকার সমমানের অর্থ থাকতে হবে। আলাদা করে কোন ফর্ম পূরণের ঝামেলা তো থাকছেই না, বরং যেকোনো স্থান থেকে ২৪ ঘণ্টা এই সেবাটি পাওয়া যাবে একদম বিনামূল্যে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, পেওনিয়ার থেকে বিকাশে টাকা আনার পদ্ধতির প্রবর্তনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ ফ্রিল্যান্সিং জগতে ও রেমিটেন্স খাতে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেলো। এর ফলে পেশাদার ফ্রিল্যান্সারদের তহবিল ব্যবস্থাপনা সহজ হয়ে যাবে। পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং-এর টাকা দেশে আনার সংশয় কেটে যাওয়ায় ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার হিসেবে নেওয়ার সামগ্রিক বাধা দূর হয়ে যাবে। সেই সূত্রে ফ্রিল্যান্সিং-এ আগ্রহ বাড়বে নতুন প্রজন্মের।

About

Popular Links