Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

এ সময় সশস্ত্র বাহিনীর একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করে

আপডেট : ১৭ মার্চ ২০২৩, ০১:৪৬ পিএম

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩ তম জন্মবার্ষিকীতে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় তার সমাধিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (১৭ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০টায় প্রথমে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ পুরো জাতির পক্ষে স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধুর প্রতি জন্মবার্ষিকীর শ্রদ্ধা নিবেদেন করেন। এরপর ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

এ সময় সশস্ত্র বাহিনীর একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করে। 

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে কিছুক্ষণ সমাধিসৌধের বেদির পাশে নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। বঙ্গবন্ধুসহ '৭৫-এর ১৫ আগস্টের শহিদ এবং মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী ৩০ লাখ শহিদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও মোনাজাত করেন তারা। 

পরে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সমাধিসৌধে রক্ষিত পরিদর্শন বইয়ে মন্তব্য লিখে স্বাক্ষর করেন। 

এরপর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা দলের জ্যেষ্ঠ্য নেতাদের সঙ্গে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। বঙ্গবন্ধুর রুহের মাগফিরাত কামনায় শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা দোয়া-মোনাজাত করেন।

এরপর রাষ্ট্রপতির পত্নী রাশিদা খানম, ছেলে রেওয়ান আহম্মদ তৌফিক ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। 

পরিবারের সদস্যদের শ্রদ্ধা নিবেদনের পর গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ ও টুঙ্গিপাড়া-কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, সংসদ সদস্য, তিন বাহিনীর প্রধান, পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় এবং সহযোগী সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এরপর পর্যায়ক্রমে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শ্রমজীবী, পেশাজীবী সংগঠন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী সড়কপথে পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় যান। কিছুক্ষণ পরে রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল

হামিদ টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে স্বাগত জানান। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বঙ্গবন্ধু সমাধিসৌধের পাবলিক প্লাজায় মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী।

এই অনুষ্ঠান থেকে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকীর সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন তিনি। এরপর অসচ্ছল ১০০ মেধাবী শিশু শিক্ষার্থীকে আর্থিক অনুদান বিতরণ করবেন। অনুষ্ঠানে শিশু প্রতিনিধি বক্তব্য রাখবে। পরে প্রধানমন্ত্রী জাতীয় শিশু সমাবেশে প্রধান অতিথির ভাষণ দেবেন। 

শিশু দিবসের অনুষ্ঠান শেষে প্রধানমন্ত্রী শিশু শিল্পীদের সঙ্গে ফটোসেশনে অংশ নেবেন। এছাড়া এই অনুষ্ঠানে শিশু অধিকার বিষয়ক প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শিত হবে। এরপর বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধ প্রাঙ্গণে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী বইমেলার উদ্বোধন ও স্টল পরিদর্শন করবেন প্রধানমন্ত্রী। 

রাষ্ট্রীয় এসব কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ শেষে টুঙ্গিপাড়া থেকে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করবেন শেখ হাসিনা।

About

Popular Links