Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

জুনে লেনদেনে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মোবাইল ব্যাংকিং

মে মাসে মোবাইল ব্যাংকিং লেনদেন হয়েছে ৭৬ হাজার ৩১২ কোটি টাকা, যা অন্যান্য স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় কম

আপডেট : ২০ আগস্ট ২০২২, ০৯:৫১ পিএম

৯৪ হাজার ২৯৪ হাজার কোটি টাকা লেনদেনের মধ্যে দিয়ে দেশে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ লেনদেনকারী হিসেবে উঠে এসেছে বিকাশ, নগদসহ মোবাইল ব্যাংকিং সেবাদানকারী মাধ্যমগুলো।

গত এপ্রিল মাসে ঈদ-উল-ফিতরকে কেন্দ্র করে সর্বোচ্চ ১০ লাখ ৭ হাজার ৪৬০ কোটি টাকা লেনদেন হয়েছিল।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, মে মাসে মোবাইল ব্যাংকিং লেনদেন হয়েছে ৭৬ হাজার ৩১২ কোটি টাকা, যা অন্যান্য স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় কম।

বেশ কয়েকটি মোবাইল ব্যাংকিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা বলেছেন, ঈদ-উল-ফিতর মে মাসের প্রথম দিকে পড়েছিল, বোনাস এবং কেনাকাটাসহ উত্সবকে কেন্দ্র করে বেশিরভাগ লেনদেন আগের মাসে হয়েছিল।

ঈদের পরের মাসে লেনদেন স্বাভাবিকভাবেই আগের মাসের তুলনায় কম বলে জানিয়েছেন খাতের সংশ্লিষ্টরা।

কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের তথ্য অনুযায়ী, মোবাইল ব্যাংকিং গ্রাহকরা জুন মাসে ৪৬ কোটিরও বেশি বার লেনদেন করেছেন - যা এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ মাসিক লেনদেন।

গ্রাহকরা ২৭,৪২০ কোটি টাকা ক্যাশ করেছেন এবং ২৬,৬৯২ কোটি টাকা ক্যাশ আউট করেছেন।

এছাড়াও, মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহারকারীরা ২৪,৫২১ কোটি টাকার ব্যালেন্স ব্যক্তি-থেকে-ব্যক্তি স্থানান্তর করেছেন।

এর প্রতিটি আগের মাসের চেয়ে বেশি।

এছাড়াও, ইউটিলিটি বিল পরিশোধের জন্য মোবাইল ব্যাংকিং সেক্টর ক্রমশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

গত জুন মাসে প্রথমবারের মতো এই ডিজিটাল সেবা ব্যবহার করে দুই হাজার কোটি টাকার বেশি বিল পরিশোধ করা হয়েছে।

এছাড়া দ্বিতীয়বারের মতো মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্টের ব্যালেন্স ১০ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে।

জুন শেষে বাকি ছিল ১০ হাজার ৮৭০ কোটি টাকা।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, ২০২১ সালের জুনের শেষের দিকে ১২ মাসে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা প্রদানকারীদের মাধ্যমে মোট লেনদেন হয়েছে ৭৫৯,৫৫৬ কোটি টাকা।

মাসে গড় লেনদেন হয়েছে ৬৩,২৯৬ কোটি টাকা।

২০২১ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের জুন পর্যন্ত মোট লেনদেন হয়েছে ৯৯০,০০০ কোটি টাকা। প্রতি মাসে গড়ে ৮২ হাজার ৫০০ কোটি টাকা লেনদেন হয়েছে।

গত এক বছরে প্রতি মাসে গড় লেনদেন ৩০.৩৪% বৃদ্ধি পেয়েছে।

গত মাসে মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্টের সংখ্যা ২.৯ মিলিয়ন বেড়েছে।

প্রাতিষ্ঠানিক হিসাবে অন্যান্য অ্যাকাউন্টের সংখ্যা ৩৯৪,০০০।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে দেশে ১৩টি ব্যাংক বিকাশ, রকেট, ইউক্যাশ, মাইক্যাশ এবং শিওরক্যাশের মতো বিভিন্ন নামে মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবা প্রদান করছে।

তারা অর্থ প্রেরণ, ক্যাশ-ইন, ক্যাশ-আউট, বেতন বিতরণ, দরিদ্রদের জন্য অনুদান, উপবৃত্তি বিতরণ, রেমিট্যান্স, বিভিন্ন সরকারি পরিষেবার জন্য অর্থপ্রদান, টোল পেমেন্ট, ক্রেডিট কার্ড বিল পরিশোধ এবং বীমা প্রিমিয়ামের মতো পরিষেবা দিয়ে থাকে।

About

Popular Links