Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

‘অদ্ভুত কারণে’ সেন্সরবোর্ডে আটকে আছে ‘কাঠগোলাপ’

বিজয়ের মাসে ‘অ্যানিম্যাল’ চললেও বাংলা সিনেমা ‘কাঠগোলাপ’-এর সেন্সর আটকে আছে

আপডেট : ১০ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৪:২৫ পিএম

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর চলছে। এই মাসে দুই একটি হলেও দেশকে কেন্দ্র করে বাংলা সিনেমা মুক্তি পেত। গত কয়েক বছরে সেই চর্চা কমেছে। চলতি মাসে এখন পর্যন্ত মুক্তির তালিকায় কোনো বাংলা সিনেমা নেই। শুধু কী তাই! ‌“মুজিব: একটি জাতির রূপকার” ছাড়া দেশের কোনো হলে বাংলা সিনেমা প্রদর্শনীর তালিকায় নেই। তবে বেশ চলছে সম্প্রতি আমদানি করা সিনেমা “অ্যানিম্যাল”।

বিজয়ের মাসে “অ্যানিম্যাল” চললেও বাংলা সিনেমা “কাঠগোলাপ”-এর সেন্সর আটকে আছে। সেটিও প্রায় দুই মাস। এ নিয়ে ফেসবুক লাইভে বিষয়টি নিয়ে সরাসরি কথা বলেন পরিচালক সাজ্জাদ খান।

তিনি বলেন, “অদ্ভুত কারণে ‘কাঠগোলাপ’ সেন্সর বোর্ডে আটকে আছে। বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান সাহেব কী কারণে এটি আটকে রেখেছেন জানি না। তবে তিনি ঠিকই ‘অ্যানিম্যাল’ বুঝেছেন। আমার মনে হয় ‘অ্যানিম্যাল’ যদি দেশের কোনো পরিচালক বানাতেন সেটা এই ভাইস চেয়ারম্যান সাহেব কখনো মুক্তি দিতেন না। এটিকে ব্যান্ড করা হতো। বাংলাদেশে আড়াই ঘণ্টার সিনেমা ‘অ্যানিম্যাল’-এ প্রচুর পরিমাণ ‘ভায়োলেন্স’ রয়েছে। আমি হয়তো ছবি আর বানাব না। কারণ এভাবে ছবি হয় না।”

সাজ্জাদ আরও বলেন, “আমার ছবিতে দেশবিরোধী কোনো কিছু নেই। সেন্সরে আটকে যাওয়ার মতো কিছুই নেই। অনেক উৎসবে যাচ্ছে ছবিটি। কিন্তু নিজ দেশে দেখাতে পারছি না।”

এই পরিচালকের মতোই চাপা ক্ষোভ বয়ে বেড়াচ্ছেন দেশের অনেক পরিচালক-প্রযোজকরা। প্রায় সাড়ে ৪ বছর ধরে সেন্সরে আটকে রয়েছে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর “শনিবার বিকেল”। সিনেমাটি মুক্তির জন্য নির্মাতা অনেক দৌড়ঝাঁপ করলেও অনুমতি পাননি।

সেন্সরবোর্ডের এই সিনেমা আটকে দেওয়ার তালিকায় সম্প্রতি আলোচনা তৈরি করেছিল মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর “শনিবার বিকেল”। প্রায় এক যুগ আটকে রয়েছে এনামুল করিম নির্ঝরের “নমুনা”। আরও রয়েছে আলোচনায় থাকা “রানা প্লাজা”, “মর থেঙ্গারি”, “হরিবোল”, “ধাবমান”।

তালিকা ক্রমশ বড় হচ্ছে। অথচ ঈদ ছাড়া পুরো বছরের সিনেমার বাজার এখন যাচ্ছে হিন্দি সিনেমার দখলে। কারণ “পাঠান”, “জাওয়ান”, ও “অ্যানিম্যাল”-এর পর শাহরুখের “ডানকি” যে এখন সময়ের অপেক্ষা মাত্র সেটি তো বলাই যায়।

About

Popular Links