Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিরল মেরুজ্যোতির সঙ্গে ছবি তুলতেই হবে, নবদম্পতিকে টেনে নিয়ে এলেন ফটোগ্রাফার

স্কটল্যান্ডের ইনভারনেসে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে ওই ছবিটি তোলা হয়

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৬:৩৪ পিএম

অদ্ভুত সুন্দর মেরুজ্যোতির সঙ্গে নবদম্পতির ছবি তুলে সাড়া ফেলেছেন স্কটল্যান্ডের এক আলোকচিত্রী। সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ পেতেই ছড়িয়ে পড়েছে।

গত ১৮ সেপ্টেম্বর দেশটির ইনভারনেসে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে ওই ছবিটি তোলা হয়।

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে দুবাইভিত্তিক সংবাদমাধ্যম খালিজ টাইমস।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইনভারনেসের বগবেইন ফার্মে রেবেকা ম্যাকডোনাল্ড ও ক্রিস ওরাম দম্পতির বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। সেই অনুষ্ঠানের ছবি তুলছিলেন আলোকচিত্রী মাইকেল কার্ভার। কাজের ফাঁকে তিনি আকাশের ছবি তুলছিলেন। এরমধ্যেই তার চোখে পড়ে উত্তরের আকাশে মেরুজ্যোতির আলো ফুটে উঠেছে। সঙ্গে সঙ্গে তিনি ওই নবদম্পতিকে বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে ডেকে বাইরে আনেন। মেরুজ্যোতির আলো পেছনে রেখে দ্রুত তিনি নবদম্পতির ছবি তুলে নেন। এর কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই সেই আলো মিলিয়ে যায়।

বুধবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে সেই ছবি পোস্ট করেছেন কার্ভার।

পোস্টে তিনি লিখেছেন, “বিয়ের ছবি তোলা শেষ করে বের হওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছিলাম। তখন আমার সহকারী অ্যাশলির উত্তর আকাশে আলো দেখতে বলছিলেন। তখনই ফোনে কিছু ছবি তুলে ফেলি। দেখি আকাশে মেরুজ্যোতি ফুটে উঠেছে। তৎক্ষণাৎ আমি ক্যামেরা ঠিকঠাক জায়গায় রাখতে রাখতে চিৎকার করে বর ও কনেকে ডাকতে থাকি।”

“আমি ক্যামেরা নিয়ে প্রস্তুত ছিলাম। তারা আসতেই সঙ্গে সঙ্গে ছবি তুলে ফেলি। মাত্র কয়েক সেকেন্ড সময় পেয়েছিলাম। তারপরই মেরুজ্যোতি হারিয়ে যায়।”

মেরুজ্যোতির সঙ্গে ছবি তোলা চ্যালেঞ্জের ছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, “আলো ঠিকঠাক রাখতে হবে, আবার তাদের ছবিও তুলতে হবে। ফলে ফোকাস ঠিক করা দরকার ছিল। আবার সময়ও ছিল না তেমন। অন্যদিকে বিয়ের ভেন্যুতেও প্রচুর আলোকসজ্জা ছিল, যা আশপাশের পরিবেশকে আরও কঠিন করে তোলে।”

তিনি আরও বলেন, “মেরুজ্যোতি নিভে যাওয়ার আগে মাত্র দুই তিনটি শট পেয়েছিলাম। আমি এমন ছবি তুলতে বহু বছর অপেক্ষা করেছি। অবশেষে সফল হয়ে ভীষণ আনন্দিত হয়েছি। আমার জন্য এটি সত্যিই একটি বিশেষ মুহূর্ত ছিল।”

এদিকে এই ছবি এরইমধ্যে ভাইরাল হয়েছে। অনেকেই মোক্ষম সময়ে ছবিটি তুলতে পারায় আলোকচিত্রীর প্রশংসা করছেন।

বিজ্ঞানীদের মতে, সৌর ঝড় পৃথিবীতে আঘাত হানলে বৈদ্যুতিক চার্জযুক্ত কণার সঙ্গে আমাদের গ্রহের বায়ুমণ্ডলে গ্যাসের সঙ্গে সেটির বিক্রিয়া হয়। এতে অক্সিজেন সবুজ ও লাল আকার ধারণ করে। আর নাইট্রোজেন নীল ও বেগুনি আলো দেয়।

About

Popular Links