Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নাভালনিকে হত্যার নির্দেশ দেননি পুতিন, ধারণা মার্কিন গোয়েন্দাদের

নাভালনির সহযোগী লিওনিড ভলকভ মার্কিন অনুসন্ধানকে ‘নির্বোধের চিন্তা ও হাস্যকর’ বলে অভিহিত করেছেন

আপডেট : ২৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:২৪ পিএম

রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনিকে হত্যার ভ্লাদিমির পুতিন কোনো নির্দেশ দেননি বলে ধারণা করছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা।

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।

এ বছরের ১৬ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার আর্কটিক কারাগারে বন্দি অবস্থায় অসুস্থ হয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন পুতিনের কঠোর সমালোচক হিসেবে পরিচিত নাভালনি। এরপর তাকে ফেরানোর সব চেষ্টা করা হলেও তাতে কোনো ফল আসেনি। 

তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে পশ্চিমা বিশ্বসহ নাভালনির সহযোগীরা দাবি করেন, পুতিনের নির্দেশেই হয়তো তাকে হত্যা করা হয়েছে।

তবে ক্রেমলিন এ ঘটনায় জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করে। মার্চে পুতিন নাভালনির মৃত্যুকে “দুঃখজনক” বলে অভিহিত করেন। তিনি বলেন, বন্দি বিনিময়ের মাধ্যমে নাভালনির আর রাশিয়ায় না ফেরার শর্তে তাকে পশ্চিমের হাতে হস্তান্তরের পরিকল্পনা ছিল।

যদিও নাভালনির সহযোগীরা এমন কোনো কথা শোনেননি না বলে জানান।

এদিকে মার্কিন গোয়েন্দা সূত্রের বরাতে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল বলছে, ফেব্রুয়ারিতে পুতিন সম্ভবত নাভালনিকে হত্যার নির্দেশ দেননি।

যদিও ওয়াশিংটন নাভালনির মৃত্যুর জন্য পুতিন দায়ী নয়, এমন কোনো বক্তব্য দেয়নি। ২০২০ সালে নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগের পর থেকেই নাভালনি হত্যা হতে পারেন এমন শঙ্কা প্রকাশ করে আসছিল পশ্চিমারা। নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগেও পুতিনকেই দায়ী করছিল তারা। যদিও ক্রেমলিন তা অস্বীকার করছে।

শনিবার ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ ওই প্রতিবেদন দেখার কথা জানান। তিনি বলেন, “আমি প্রতিবেদনটি দেখেছি। তবে এটি বলবো না যে এই প্রতিবেদন খুব উচ্চমানের।”

তবে এ প্রতিবেদন স্বাধীনভাবে যাচাই করতে পারেনি ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স। তারাও অবশ্য সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছে, ওই অনুসন্ধান গোয়েন্দারা গ্রহণ করেছেন। তারা এটিকেই একরকম মেনে নিয়েছেন।

ওই প্রতিবেদন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা, জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার পরিচালকের কার্যালয় ও স্টেট ডিপার্টমেন্টসহ বেশ কয়েকটি গোয়েন্দা সংস্থা ভাগাভাগি করেছে।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে গোয়েন্দা সংস্থার যে উদ্ধৃতি দেওয়া হয়েছে, তাতে নাভালনির মৃত্যুর বিভিন্ন বিষয় যাচাই করা হয়েছে। এছাড়া পুতিনের কর্মকাণ্ডও এতে নজর রাখা হয়েছিল বলে জানানো হয়।

যদিও নাভালনির সহযোগী লিওনিড ভলকভ মার্কিন অনুসন্ধানকে “নির্বোধের চিন্তা ও হাস্যকর” বলে অভিহিত করেছেন।

About

Popular Links