Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

তাপমাত্রা পৌঁছাতে পারে ৪৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে

রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশেই বইছে তাপপ্রবাহ। অতিরিক্ত গরমে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে জনজীবন। দুই সপ্তাহ ধরে চলা এই তাপপ্রবাহ সহসাই কমছে না

আপডেট : ১৫ এপ্রিল ২০২৩, ০৬:০৯ পিএম

রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশেই বইছে তাপপ্রবাহ। অতিরিক্ত গরমে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে জনজীবন। দুই সপ্তাহ ধরে চলা এই তাপপ্রবাহ সহসাই কমছে না। আরও বেশ কয়েকদিন আবহাওয়া এমন উষ্ণ থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

শুক্রবার (১৪ এপ্রিল) বৈশাখের প্রথম দিনে হাঁসফাঁস অবস্থা ছিল রাজধানীবাসীর। দুপুর নাগাদ তাপমাত্রা রেকর্ড ছুঁয়েছিল। আজ শনিবারও একই রকম রেকর্ড তাপমাত্রা বিরাজ করছে দেশে। 

এমন তীব্র দাবদাহে সবচেয়ে দুর্বিষহ অবস্থা পার করছেন দেশের খেটে খাওয়া মানুষগুলো। এছাড়া যাদের অতিপ্রয়োজনীয় কাজে ঘরের বাইরে বের হতে হচ্ছে তাদের অবস্থাও খুব খারাপ।

তাপদাহে গত কয়েকদিনে ডিহাইড্রেশন, জ্বর ও হিটস্ট্রোকে আক্রান্ত হয়েছেন অনেকে। বিশেষ করে শিশু ও গর্ভবতী মায়েরা বেশি ঝুঁকিতে রয়েছেন। অনেককে হাসপাতালে চিকিৎসাও নিতে হয়েছে।

এদিকে অতিরিক্ত গরমের কারণে এয়ার কন্ডিশনার, ছাতা, সানগ্লাস ও সানস্ক্রিন লোশন বিক্রি ও ব্যবহার উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। তাজা ও কৃত্রিম রস খাওয়ার পরিমাণও বেড়েছে।

সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গে তাপমাত্রা কমলেও তাতে স্বস্তি মিলছে না। সারাদিনের তীব্র তাপপ্রবাহে শরীরের ত্বক পুড়ে যাওয়ার উপক্রম হয়। তাপমাত্রা বৃদ্ধিতে বিদ্যুতের চাহিদাও বেড়েছে। নগরবাসী, বিশেষ করে পথচারী, নিম্ন আয়ের মানুষ এবং শিক্ষার্থীরা অতিরিক্ত গরমের কারণে বাইরে বের হলে সহজেই ক্লান্ত হয়ে পড়ছেন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই মৌসুমে রাজধানীর তাপমাত্রা বেশি থাকার জন্য অপরিকল্পিত উঁচু ভবন, জমি ভরাট, ভারী যানবাহন নির্গমন, এয়ার কন্ডিশনার এবং জীবাশ্ম জ্বালানির অতিরিক্ত ব্যবহার এবং বৃক্ষ নিধনকে দায়ী করেছেন।

শনিবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, খুলনা বিভাগসহ ঢাকা, ফরিদপুর, মানিকগঞ্জ, রাজশাহী, পাবনা ও পটুয়াখালী জেলাসমূহের উপর দিয়ে তীব্র তাপ প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। দেশের অবশিষ্টাংশের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারী ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

টানা ১৪ দিন ধরে দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জেলা চুয়াডাঙ্গায়। চুয়াডাঙ্গায় বয়ে যাচ্ছে অতি তীব্র তাপপ্রবাহ। গত ১০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড ভেঙেছে শনিবার। এদিন বিকেল ৩টায় জেলার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪২.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

গতকাল দুপুরে ঢাকার তাপমাত্রা ছিল ৪০.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গত ৫৮ বছরের মধ্যে সবচেয়ে উত্তপ্ত দুটি দিনের মধ্যে এটি একটি। এর আগে ২০১৪ সালের ১৪ এপ্রিল ঢাকার তাপমাত্রার পারদ একই উচ্চতায় উঠেছিল; অর্থাৎ ৪০.২ ডিগ্রি ছুঁয়েছিল। তারও আগে ১৯৬৫ সালে তাপমাত্রা উঠেছিল ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি তাপমাত্রার রেকর্ড হয়েছিল ১৯৬০ সালে, ৪২.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

মনিটরিং ওয়েবসাইট ওয়েদার ডটকম অনুযায়ী, আগামী ১৮ এপ্রিল থেকে চুয়াডাঙ্গার তাপমাত্রা ৪৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছাতে পারে। এবং এটি অব্যহত থাকতে পারে। ২২ এপ্রিলে ৪০ ডিগ্রিতে নামতে পারে। অন্যদিকে একই সময়ের মধ্যে ঢাকার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছাতে পারে। ২২ এপ্রিল বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে।

About

Popular Links