Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কাপ্তাইয়ে মারমাদের সাংগ্রাঁই জল উৎসব

অনুষ্ঠানে মারমা সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, সাংগ্রাঁই শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা ও জলকেলির আয়োজন ছিল

আপডেট : ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:১৬ পিএম

“সাংগ্রাঁইমা ঞিঞি ঞাঞা রিকজাইগাইপামে/ওও ঞি কো রো ওও মি ম্রি রো/লাগাই লাগাই/চুইপ্যগাইমেলেহ্।” অর্থাৎ, নববর্ষে সবাই মিলে এক সাথে জল খেলতে যাই, ও ভাইয়েরা ও বোনেরা, খুশিতে মিলিত হই।

সাংগ্রাঁই জল উৎসবের অন্যতম জনপ্রিয় গানটি গেয়ে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী মারমা শিল্পীরা যখন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সূচনা করেন, ঠিক তখনই হাজারও মানুষের কলরবে মুখরিত হয়ে ওঠে চিংম্রং বৌদ্ধ বিহার মাঠ।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টায় রাঙ্গামাটির কাপ্তাই উপজেলার চিংম্রং বৌদ্ধবিহার মাঠে এভাবেই গানে-গানে বর্ণিল প্রাণের উৎসব সাংগ্রাঁই রিলংপোয়েতে অংশ নেন তারা।

পুরোনো দুঃখ, গ্লানি, বেদনাকে ভুলে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়ে পার্বত্য চট্টগ্রামের মারমারা সাংগ্রাঁই জল উৎসব বা সাংগ্রাঁই রিলং পোয়ে উৎসব উদযাপন করে থাকেন। অনুষ্ঠানে মারমা সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, সাংগ্রাঁই শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা ও জলকেলির আয়োজন ছিল।

মারমা সম্প্রদায়ের পাশাপাশি উৎসব দেখতে আসেন বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে হাজার হাজার মানুষ।

উৎসব উপলক্ষে বিহার সংলগ্ন মাঠে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার। 

তিনি বলেন, “বিভিন্ন সম্প্রদায়ের উৎসবে মানুষের মেলবন্ধন হয়, এটাই আমাদের সংস্কৃতির প্রধান অনুষঙ্গ। এই দেশ একটি অসাম্প্রদায়িক চেতনার দেশ।”

জল উৎসব উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ও স্থানীয় চিৎমরম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ওয়েশ্লিমং চৌধুরীর সভাপতিত্ব এবং অ্যাডভোকেট হ্লাথোয়াই মারমার সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কাপ্তাই ৪১ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আমীর হোসেন মোল্লা, কাপ্তাই ৫৬ বেঙ্গলের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল নুর উল্লাহ জুয়েল, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ সদস্য অংসুইছাইন চৌধুরী,  উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মহিউদ্দিন, সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য প্রকৌশলী থোয়াইচিং মং মারমা, রাজস্থলী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুল আহমেদ ভুইঞা প্রমুখ।

সভা শেষে অতিথিরা বিহার সংলগ্ন মাঠে জলকেলির উদ্বোধন করেন। 

সোমবার মূল সাংগ্রাঁই  উৎসব উদযাপিত হলেও শনিবার থেকে চিংম্রং এলাকায় বসে বৈশাখী মেলা। মঙ্গলবার সকালে রাঙ্গামাটি মারী স্টেডিয়ামে মারমা সাংস্কৃতিক সংস্থার আয়োজনে অনুষ্ঠিত হবে আরও একটি জল উৎসব।

About

Popular Links