Tuesday, June 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বাংলাদেশে কর্মরত চীনা কর্মকর্তাদের জন্য বাংলা ভাষা শিক্ষা কোর্স চালু

সংশ্লিষ্টরা মনে করেন, এই কোর্স শেষে সিআরইসির কর্মকর্তারা সাধারণ মানুষের সঙ্গে কর্মীদের সঙ্গে আরও ভালো করে যোগাযোগ ও যুক্ত হতে পারবেন

আপডেট : ২৯ মে ২০২৪, ০৬:৫৯ পিএম

“স্থানীয় জনগণের সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়া এবং এর উন্নয়নে অবদান রাখা” প্রতিপাদ্যে বাংলাদেশে চালু হলো “মিডিয়া ওপেন ডে এবং ব্যবহারিক বাংলাভাষা প্রশিক্ষণ কোর্স।”

মূলত বাংলাদেশে কর্মরত চায়না রেলওয়ের চীনা কর্মকর্তাদের বাংলা ভাষায় দক্ষ করে গড়ে তুলতে এমন উদ্যোগ নিয়েছে চায়না রেলওয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ (সিআরইসি)।

বুধবার (২৯ মে) সকালে ঢাকার কেরানীগঞ্জে অবস্থিত চায়না রেলওয়ের ডিভিশন-১ এর সম্মেলন কক্ষে একটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে বাংলা ভাষা শিক্ষা কোর্সের উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কনফুসিয়াস ইন্সটিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ইয়াং হুই।

উদ্বোধনকালে তিনি বলেন, “আপনারা জানেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কনফুসিয়াস ইন্সটিটিউট চীনা ভাষা শিক্ষার একটি প্রফেশনাল ইন্সটিটিউট। কিন্তু কেন আমরা সিআরইসির জন্য এরকম একটি কোর্স শুরু করতে যাচ্ছি? এর কারণ হলো এই কোর্স শেষে সিআরইসির কর্মকর্তারা সাধারণ মানুষের সঙ্গে কর্মীদের সঙ্গে আরও ভালো করে যোগাযোগ ও যুক্ত হতে পারবেন। পাশাপাশি তারা উন্নয়নে অবদান রাখতে পারবেন।”

যৌথভাবে এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে চায়না মিডিয়া গ্রুপ (সিএমজি) ও সিআরইসি। এর আগে সকালে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতে চায়না মিডিয়া গ্রুপ ও চায়না রেলওয়ের বাংলাদেশ নানাবিধ কার্যক্রমের ভিডিও চিত্র এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চায়না রেলওয়ের অবস্থান, সেখানে পরিচালিত কার্যক্রমও তুলে ধরা হয়। এরপর বাংলাদেশে সিআরইসি’র বেশ কয়েকটি শাখা অফিসের চীন আর বাংলাদেশি কর্মকর্তাদের অনুভূতি ও অভিজ্ঞতার প্রামাণ্য চিত্র প্রচার করা হয়।

এছাড়া অনুষ্ঠানে চীনে আসন্ন ড্রাগ বোট উৎসব নিয়ে বিস্তার তথ্য উপস্থাপন ও আলোচনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কনফুসিয়াস ইন্সটিটিউটের শিক্ষক নিলু আক্তার।

অনুষ্ঠানের একেবারে শেষ পর্যায়ে চায়না রেলওয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং কর্পোরেশন এবং চায়না মিডিয়া গ্রুপ যৌথভাবে একটি বাংলাগান পরিবেশন করে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পদ্মা ব্রিজ রেল লিংক প্রজেক্টের (পিবিআরএলপি) প্রকল্প পরিচালক, আফজাল হোসেন। সিআরইসির আঞ্চলিক সদর দপ্তরের নির্বাহী ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং বাংলাদেশে চায়না রেলওয়ে গ্রুপের বাংলাদেশ প্রতিনিধি ওয়াং হংপোসহ চায়না রেলওয়ের বিভিন্ন কর্মকর্তা এবং বাংলাদেশের মিডিয়া ব্যক্তিত্বরা।

ওয়াং হংপো তার বক্তব্যে বলেন, “চায়না রেলওয়ে তার বাংলাদেশে কর্মরত কর্মকর্তাদের জন্য বাংলা ভাষা শিক্ষার সুযোগ করে দিয়েছে এটা খুবই ভালো উদ্যোগ। এর মাধ্যমে দুইদেশের কর্মকর্তা-কর্মীদের মধ্যে যোগাযোগ আরও সহজ হবে। ফলে কাজগুলো আরও সহজ এবং দ্রুততর ও সুন্দর হবে।”

পদ্মা ব্রিজ রেল লিংক প্রজেক্টের (পিবিআরএলপি) প্রকল্প পরিচালক আফজাল হোসেন বলেন, “আজেকর দিনটা আমার জন্য খুবই স্পেশাল। আমরা গত পাঁচ বছরে অনেক বাধা পেরিয়ে এই প্রজেক্ট বাস্তবায়ন করেছি। সিআরইসি তাদের কর্মকর্তাদের জন্য বাংলাভাষা শিক্ষা কোর্স চালু করছে এটি খুবই ভালো উদ্যোগ। কেননা এ ধরনের প্রজেক্ট বাস্তবায়ন করতে গিয়ে নানা ধরনের সমস্যা হয়। বিশেষ করে ভাষাগত সমস্যা। এটা দুই দেশের ক্ষেত্রেই হয়। এই প্রজেক্ট বাস্তবায়ন করতে গিয়েও হয়েছে। তবে এমন উদ্যোগের ফলে সামনে এমন সমস্যা আর হবে না। ভবিষ্যতে এই কোর্স করে বাংলাদেশের স্থানীয় মানুষের ভাষা বুঝতে পারবেন সিআরইসির কর্মকর্তারা।”

About

Popular Links